মোঃ সাঈদী আকবর ফয়সাল, চকরিয়া:
..
 চকরিয়া উপজেলার বমুবিল ছড়ি ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে নানান অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সারা দেশের ন্যায় কক্সবাজারের চকরিয়ায় ভোটার হালনাগাদ শুরু হয়েছে। হালনাগাদের জন্য নাগরিকদের প্রয়োজন হয় জন্ম নিবন্ধন, চেয়ারম্যান কর্তৃক নাগরিত্ব সনদ সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। সুত্রে জানা গেছে, এই সুযোগে  বমু বিলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের হালনাগাদ ভোটারদের কাছ থেকে  নানা অনিয়মের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বমু বিলছড়ি ইউ পি চেয়ার ম্যান, সচিব। তৌহিদ নামে একজন নাগরিক জানান আমার কাছ থেকে ৫০টাকার জন্মসনদ নিয়েছে ১৫০টাকা এবং নাগরিকত্ব সনদ নিয়েছি ৪নং ওয়ার্ডের চৌকিদার বশির আহমদ থেকে। সচেতন কয়েকজন নাগরিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, হালনাগাদ ভোটারদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করতেছে পরিষদে, অতিরিক্ত টাকা আদায় করা তাদের নিয়মে পরিনত হয়েছে, সংশোধন করতেও নাকি ৩০০০টাকা খুজছে পরিষদ থেকে। খবর নিয়ে জানা যায়, জন্ম সনদ ৫০ টাকার পরির্বতে ১৫০/২০০ টাকা নিচ্ছে ইউ ডি সি । ভূমিহীন সনদ ৩০ টাকার পরির্বতে নিচ্ছে ৫০-৭০ টাকা, সনদপত্র ২০ টাকার পরিবর্তে ১০০/১৫০ টাকা।চৌকিদারি ট্যাক্স প্রতি বাড়ি ৫০টাকার পরির্বতে জনপ্রতি ১৪০-২০০টাকা পর্যন্ত নিচ্ছে সচিব আরিফুল বাহার।
অভিযোগের ব্যাপারে কয়েকজন  ভোক্তভোগীরা চেয়ারম্যানকে জানালে চেয়ারম্যান বলেন, ভোটারের ছবি তোলার জন্য উপজেলা থেকে যে লোক আসবে তাদেরকে কে গাড়ী ভাড়া,আপ্যায়ণ সহ অনেক খরচ দিতে হবে। তোমাদেরর জন্য আমার বাড়ি থেকে এনে গাড়ী ভাড়া, খাওয়াব না কি?। জনগন প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন। এ ব্যপারে সচিব আরিফুল বাহারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সংযোগ না পাওয়ায় সম্ভব হয়নি।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •