ইফতেখার শাহজীদ, কুতুবদিয়া:

কুতুবদিয়ায় বসত বাড়িতে আগুণ লেগে লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলার দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের নয়া পাড়া গ্রামে (১নং ওয়ার্ড) অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে। এতে প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন দক্ষিণ ধুরুং ইউপির চেয়ারম্যান ছৈয়দ আহমদ চৌধুরী।

স্থানীয় এমইউপি নুরুল আবছার, তাহের আনচারী, আবদুল হক, মনজুর আলম ও সেলিমসহ প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, রবিবার (৩০ জুলাই) ভোর রাতে ওই বসত বাড়িতে আগুণ লাগলে চারদিকে হৈ চৈ পড়ে যায় এবং প্রতিবেশীরা এসে আগুণ নেভাতে সক্ষম হয়। এতে কোন প্রাণ হানির ঘটনা না ঘটলেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

বাড়ির মালিক কলিম উল্লাহ বলেন, বসত বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে কে বা কারা ভোর রাতে আগুণ লাগিয়ে দিয়েছে। ঘরে থাকা সাগরে মাছ ধরার জাল, আসবাবপত্রসহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছিল। সবকিছু পুড়ে ছ্াঁই হয়ে গেছে। এলাকার কেউ শত্র“তা করে ঘরে আগুণ দিয়েছে বলে মনে করছেন তিনি।

এদিকে ওই আগুণ লাগা নিয়ে এলাকায় দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বলেছে আগুণ লাগার ২০-২৫মিনিটের মধ্যে সম্পূর্ণভাবে পুড়ে যায় বাড়িটি। তাদের ধারণা বাহির থেকে পেট্রোল বা অন্য কোন দাহ্য পদার্থ ব্যবহার করে আগুণ লাগানো না হলে এত কম সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ বসতবাড়ি পুড়ে ছাঁই হওয়া সম্ভব নয়।

স্থানীয় চেয়ারম্যান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কে বা কারা রাতের আধাঁরে কলিম উল্লাহর বাড়িতে আগুণ লাগিয়ে দিয়েছে। এতে তার ঘরটি সম্পূর্ণ ভস্মিভূত হয়ে বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এ বিষয়ে কলিম উল্লাহ বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছে বলে জানা গেছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •