জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ীদের পুলিশে দিন -ওসি বখতিয়ার

বিশেষ সংবাদদাতা:
জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ীসহ সব ধরণের অপরাধীদের ধরে পুলিশে দেয়ার অনুরোধ করেছেন চকরিয়া থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, অপরাধীদের কোন রাজনৈতিক কিংবা সামাজিক পরিচয় নেই। তাদের পরিচয় অপরাধীই। সুতরাং অপরাধ করে কারো পার পেয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। সে যতই বড়ই শক্তিশালী হোক তাকে ধরা হবে। নেয়া হবে আইনী ব্যবস্থা।
শনিবার (২৯ জুলাই) রাতে সদরের ইসলামপুর ও চকরিয়ার খুটাখালী এই দুই ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতারা ওসি বখতিয়ার উদ্দিনের সাক্ষাতে গেলে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি অপরাধীদের ধরে রেখে পুলিশকে খবর দেয়ারও জন্যও বলেন।
সম্প্রতি চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী এলাকার কিছু চিহ্নিত জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ী সদরের নতুন অফিস এলাকায় সরকারী বনভূমি দখল করে নির্মিত জুয়া ও মাদকের আস্তানা গড়ে তুলার বিষয়ে জানাতে যান এলাকাবাসী। যেটি নিয়ে দুই ইউনিয়নের অধিকাংশ মানুষ উদ্বিগ্ন ও ক্ষুব্ধ।
এর আগে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম (এমএ) এর সাথে সাক্ষাতে যান দুই ইউনিয়নের অর্ধশতাধিক জনগণ। সাক্ষাতকালে তিনি এলাকাবাসীর অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে শুনেন এবং এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চকরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ইসলামপুর ইউপির চেয়ারম্যান আবুল কালাম, সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মনজুর আলম, সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা আলহাজ্ব ডাঃ মীর আহমদ হেলালী, খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বাহাদুর ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক বেলাল আজাদ, ইসলামপুর ইউপি সদস্য ইদ্রিস রানা, জেলা ও দায়রা জজ আদালতের তরুণ আইনজীবী এস.এম জসিম উদ্দিন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওসমান আলী মোরশেদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবছার কামাল শাহীন, সদর আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান গণি প্রমুখ।
একই বিষয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় ফুলছড়ি বনবিভাগ ও এলাকাবাসীর যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় নতুন অফিস এলাকায় সরকারী বনভূমি দখল করে নির্মিত জুয়া ও মাদকের আস্তানা সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বন্ধ করে অপরাধীদের আইনের কাছে তুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
এলাকাবাসী জানায়, খুটাখালী শিয়াপাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ী ইমাম শরীফ প্রকাশ টুয়াইয়া, জসিম উদ্দিন, পেঠান, এনাম, আবদুর রশিদ, ফারুক, মিনহাজ, হেলাল উদ্দিন, সাহাব উদ্দিনসহ ২০/২৫ জনের একটি সিন্ডিকেট ইসলামপুরের ৫ নং ওয়ার্ডভুক্ত জুমনগর এলাকার সরকারী বনভূমিতে আস্তানা গড়ে দীর্ঘদিন মদ, জুয়াসহ নানা অপরাধকর্ম চালিয়ে আসছে।
তাতে এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি দিন দিন হুমকিতে পড়েছে। অপরাধীদের সাথে চকরিয়া থানার কিছু অসাধু পুলিশ কর্মকর্তাদের যোগ সাজস রয়েছে বলেও অভিযোগ তুলা হয়। অবশেষে বিষয়টি থানা ও উপজেলা প্রশাসনকে সরাসরি অবগত করতে উদ্যোগ নেয় দুই ইউনিয়নের সচেতন জনগণ।
উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২১ জুলাই) দুপুরে ইসলামপুরের নতুন অফিস এলাকায় গড়ে তুলা দুইটি মদ জুয়ার আস্তানা গুড়িয়ে দেয় এলাকাবাসী। এ ঘটনায় মাদকসেবীরা প্রকাশ্যে গুলিবর্ষণ করে এলাকার ৩ জন মারাতœক আহত হয়ে। পরে স্থানীয় নিরীহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে চকরিয়া থানাও মামলা করে জুয়াড়ী ও মাদক ব্যবসায়ীরা। (মামলা নং জিআর-৩৮৯/১৭)।

 

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

তাহলে কী জাফর-আশেক-কানিজ-বদি পাচ্ছেন নৌকার টিকেট!

ইসলামাবাদে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত

‘নেতানিয়াহু, ট্রাম্প ও বিন সালমান শয়তানের ৩ অক্ষশক্তি’

উখিয়ায় অপহৃত যুবক উদ্ধার, দুই অপহরণকারী আটক

চ্যানেল কর্ণফুলীর কক্সবাজার প্রতিনিধি সেলিম উদ্দীন

‘পারস্পরিক কল্যাণকামিতার মাধ্যমেই সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গঠন সম্ভব’

ধানের শীষে নির্বাচন করবে জামায়াত!

কুতুবদিয়ায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মহড়া অনুষ্ঠিত

কক্সবাজারে আয়কর মেলা, তিনদিনে ৫৯ লাখ টাকা রাজস্ব আদায়

পোকখালীতে চিংড়ি ঘেরে ডাকাতির চেষ্টা, মালিককে কুপিয়ে জখম

মহেশখালীতে ৩দিন ব্যাপী কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু

ইন্টারনেট সুবিধার আওতায় কক্সবাজার প্রেসক্লাব

আওয়ামীলীগ ভাওতাবাজিতে চ্যাম্পিয়ন : ড. কামাল

সত্য বলায় এসকে সিনহাকে জোর করে বিদেশ পাঠানো হয়েছে: মির্জা ফখরুল

সাতকানিয়ায় মাদকসহ আটক ২

কক্সবাজারে হোটেল থেকে বন্দী ঢাকার তরুণী উদ্ধার

৩০০ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত ইসলামী আন্দোলনের

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খেলনা বেলুনের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত ৯

চকরিয়া আসছেন পুলিশের আইজি, উদ্বোধন করবেন থানার নতুন ভবন

না ফেরার দেশে গর্জনিয়ার জমিদার পরিবারের দুই মহিয়সী নারী