স্বামী মারা যাবার ২ বছরেরও অধিক সময়ের পর সন্তান জন্ম দিলেন এক নারী। স্বামী এক নিউইয়র্ক পুলিশ কর্মকর্তা দায়িত্বরত অবস্থায় গুলিতে নিহত হয়েছিলেন। এরপরেও নিজ স্বামীর স্মৃতিচিহ্ন ধরে রাখতে সন্তান গর্ভে ধারণের জন্য সংগ্রাম করে গেছেন এ বিধবা নারী। অবশেষে দীর্ঘ সময় পর এক কন্যা সন্তানের মুখ দেখলেন তিনি।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে স্বামী ডেট ভেনজিয়ান লিউ (৩২) দায়িত্বরত অবস্থায় নিহত হন, সে দিন রাতেই তার দেহ থেকে শুক্রাণু সংগ্রহ করা হয়। যার মাধ্যমে নানা প্রক্রিয়া শেষে স্ত্রী স্যানি সন্তান গর্ভে ধারণ করতে সক্ষম হন। স্বামীর শুক্রাণু সংগ্রহের মাধ্যমে আইভিএফ পদ্ধতিতে গর্ভবতী হন তিনি।

নিউ ইয়র্ক পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানান, তাদের দুই জনেরই একটি পরিবার গড়ার পরিকল্পনা ছিল। পুলিশের প্রতি অসন্তোষ বশবর্তী হয়ে অফিসার লিউ এবং তার সহকারি রাফায়েল রামোসকে গুলি করে হত্যা করে এক আফ্রো-আমেরিকান বন্দুকধারী। মাত্র ১২ বছর বয়সে পিতামাতার সাথে চীন থেকে নিউ ইয়র্কে আসেন তিনি।

স্যানি লিউ বলেন, ডেট লিউ নিহত হবার পর এক রাতে স্বপ্ন দেখেন তিনি তার হাতে একটি কন্যা শিশু তুলে দিচ্ছেন।

সনোগ্রাম পরীক্ষার আগেই তিনি বলে দিয়েছিলেন কন্যা সন্তানের মা হতে যাচ্ছেন তিনি। সবাইকে অবাক করে দিয়ে ঠিকই কন্যা সন্তান জন্ম দিলেন তিনি। সেইসাথে নিজেদের স্বল্প সময়ের সুখের সংসারের প্রতীকী হিসেবে পেলেন কন্যা এঞ্জেলিনা।

সূত্র: বিবিসি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •