‘জলাবদ্ধতা মিডিয়ার সৃষ্টি’

হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে বললেন নগর পরিকল্পনাবিদ

প্রথমআলো :
ঢাকা ও চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা মিডিয়ার সৃষ্টি। নগর পরিকল্পনাবিদের আলোচনা থেকে বেরিয়ে এসেছে এ কথাই। বন্যা ও জলাবদ্ধতা এই দেশে চিরকাল হয়ে এসেছে। কিন্তু দেশে ক্যামেরা ফোন ও মিডিয়ার বন্যার কারণে কৃত্রিমভাবে জলাবদ্ধতা লাইম লাইটে এসেছে। ৫৭ ধারার যথাযথ প্রয়োগ হলেই এর থেকে রেহাই মিলবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ঢাকা দক্ষিণে বসবাসরত বিশিষ্ট নগর পরিকল্পনাবিদ সলিল চৌধুরী বলেন, ‘পানি জমেছে, এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই। বৃষ্টি হলে পানি জমবেই।’ গতকাল হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে তিনি সাংবাদিকদের আরও বলেন, ‌‘‌‌জলাবদ্ধতা নিয়ে মিডিয়া বাড়াবাড়ি করছে। প্রকৃতপক্ষে জলাবদ্ধতা বলতে যতটুকু পানি জমা দরকার, ততটুকু পানি জমেনি।’

কতটা পানি জমলে তাকে জলাবদ্ধতা বলা যায়? এ প্রশ্নের কোনো রিপ্লাই দেননি সলিল চৌধুরী। এ সময় তিনি কোমরপানিতে তলিয়ে যান বলে নিশ্চিত করেছে একটি বিশ্বস্ত সূত্র।

ঢাকা উত্তরে বসবাসরত বিশিষ্ট নগর পরিকল্পনাবিদ বারি মতলব বলেন, ‘আমরা নদীমাতৃক দেশের নাগরিক। রাস্তায় পানি ওঠায় এত চিন্তিত হওয়ার কী আছে? আমরা কোনো কিছুকেই স্বাভাবিকভাবে নিতে পারি না। বৃষ্টি হয়েছে, পানি উঠেছে। রোদ উঠলে পানি কমে যাবে। এটাই জগতের নিয়ম।’

পানি পেরিয়ে মানুষ কীভাবে গন্তবে্য পৌঁছাবে? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি রাগের ইমো পাঠিয়ে বলেন, ‘মানুষ কীভাবে যাবে, তার আমি কী জানি? ঘরে ঘরে গিয়ে তো আমি মানুষকে পার করে দিতে পারি না, তাই না?’

প্রয়োজনে মানুষকে সাঁতারের পরামর্শ দিয়ে এই বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘সাঁতার একটি ভালো ব্যায়াম। আমরা যদি একটি নির্মেদ, স্বাস্থ্যকর সমাজ গঠন করতে চাই, তাহলে সাঁতারের বিকল্প নেই।’

জলপথ যে কতটা নিরাপদ এবং পরিবেশবান্ধব, সে বিষয়ে আরও বিস্তারিত বক্তব্য দেন এই বিশেষজ্ঞ। তিনি বলেন, ‘নৌযানের যাতায়াত কার্বন নিঃসরণ রোধে ভূমিকা রাখবে।’

তাহলে এভাবেই দেশ তলিয়ে যাবে কি না, জানতে চাইলে মেসেজ সিন করেননি বারি মতলব। ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘আমার একতলা বাসায় পানি ঢুকে গেছে। এখন আমি কথা বলতে পারব না।’

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফ উপজেলা যুবদলের কমিটি গঠিত

সাপ্তাহিক মাতামুহুরী’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

টেকনাফে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে বিদেশী মদ বিয়ারসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে হত্যা ও মানব পাচার মামলার আসামী গ্রেফতার

চকরিয়ায় ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

খালেকুজ্জামান বেঁচে আছেন জনতার মাঝে

মরহুম এড. খালেকুজ্জামান স্মরণে ৫ম দিনেও বিভিন্ন মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

`রাঙামাটির রূপ দিনদিন হারিয়ে যেতে চলেছে’

বান্দরবানে শ্রেষ্ঠ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা কালাম হোসেন

বর্তমান সরকারই পাহাড়ের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে : বীর বাহাদুর এমপি

কুতুবদিয়ায় শহীদ উদ্দিন ছোটনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ফের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

লামায় ক্যাম্প প্রত্যাহার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও রাজার সনদ বাতিল দাবীতে মানববন্ধন

লবণ আমদানি হবেনা, মজুদদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা -শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু

১ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন লবণ উদ্বৃত্ত, তবু আমদানির চক্রান্ত

ঈদগাঁও থেকে দোকানদার অপহরণঃ ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী!

‘হিংসাবিহীন মানুষ পাওয়া কঠিন’

যখন দশম শ্রেণির ছাত্রী এই সময়ের পিয়া

উখিয়ায় অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন এসিল্যান্ড একরামুল ছিদ্দিক

কক্সবাজার শহরে বেড়েই চলছে চুরি ছিনতাই

হোটেল সী-গালের সংবর্ধনায় সিক্ত মেয়র মুজিবুর রহমান