শাহীনশাহ, টেকনাফ:
টেকনাফে ৭৯ হাজার ২শত ৭৩ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মিয়ানমারের দুই নাগরিককে আটক করতে সক্ষম হয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। আটককৃতরা হচ্ছে আকিয়াব জেলার মংডু দলিয়াপাড়া গ্রামের আবুল বশারের ছেলে মোঃ জুনায়েদ (২০), নুর আলমের ছেলে মোহাম্মদ জোহার (৩০)।

বিজিবি সূত্রে জানা গেছে, ২৭ জুলাই ভোর রাতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে দমদমিয়া বিওপির হাবিলদার মোঃ লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে একটি বিশেষ দল সাবরাং ইউপিস্থ নাজিরপাড়া নাফ নদী দিয়ে ইয়াবার একটি চালান মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে এই সংবাদে নাফ নদীর পার্শ্ববর্তী কেওড়া বাগানে ওঁৎ পেতে থাকে। পরবর্তীতে একটি নদীর কিনারায় আসা মাত্রই টহলদল নৌকায় আরোহিত দুইজন ব্যক্তিকে সন্দেহ হওয়ায় চ্যালেঞ্জ করে। বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই ইয়াবা পাচারকারীরা নৌকাটি ইউটার্ন করে মায়ানমারের দিকে গমনের প্রাক্কালে নৌকাটি ডুবে যায়। এমতাবস্থায় দমদমিয়া বিওপির সুবেদার মোঃ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে অপর একটি টহলদল স্পীডবোট নিয়ে ধাওয়া করে ইয়াবা পাচারকারী দুইজন মিয়ানমার নাগরিককে নদী হতে উদ্ধার করে আটক করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে ধৃত আসামীদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী নৌকা ডুবে যাওয়া এলাকায় ব্যাপক তল্লাশী চালিয়ে ৭৯ হাজার ২৭৩ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। যার বাজার মূল্য দুই কোটি সাতত্রিশ লক্ষ একাশি হাজার নয়শত টাকা। ২ বজিবির ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক ও অতিরিক্ত পরিচালক সংবাদরে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ইয়াবা ট্যাবলেট পাচারের উদ্দেশ্যে নিজ দখলে রাখা এবং অবৈধভাবে মায়ানমার হতে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবাসহ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •