ডেস্ক নিউজ:

জেলা পর্যায়ে চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে পৌরসভাগুলোকে সক্রিয় করার উদ্যোগ নিতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

বুধবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের অষ্টম কার্য-অধিবেশন শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এই কার্য-অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী উপস্থিত ছিলেন।

চিকুনগুনিয়া নিয়ে ডিসিদের কোন নির্দেশনা দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে স্বা্স্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চিকুনগুনিয়া নিয়ে কেউ কোন কথা বলেননি। জেলা পর্যায়ে এ সমস্যা নেই, জেলা পর্যায়ে যায়নি।চিকুনগুনিয়ার ব্যাপারে বলা হয়েছে ঢাকায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছিল। এটি আমরা মোকাবেলা করেছি ইনশাআল্লাহ। ভবিষ্যতে যেন চিকনগুনিয়ার প্রার্দুভাব না দেখা যায় এজন্য স্থানীয়ভাবে জেলা প্রশাসকদের দায়িত্ব হলো মশা নিধনে পৌরসভাগুলোকে অ্যাকটিভ (সক্রিয়) করা।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের যেহেতু নির্বাচনের বেশি বাকি নেই, এক থেকে দেড় বছরের মধ্যে নির্বাচন হবে। আমাদের উন্নয়ন কাজগুলো দেখভাল করার দায়িত্ব তাদের (ডিসিদের)। স্বাস্থ্যসেবা খাতে উল্লেখযোগ্য সফলতা বাংলাদেশ দেখিয়েছে, সেখানে আমি বিশ্বাস করি উন্নয়ন কাজগুলো এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে তারা বড় ভূমিকা রাখবে।অনেক সময় দেখা যায় অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে। চিকিৎসকদের সঙ্গে স্থানীয় রোগীর স্বজনদের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। আমি বলেছি, যেকোনো পরিস্থিতি হোক না কেন আপনারা সরাসরি কোন চিকিৎসককে আইনে সোপর্দ না করে স্থানীয়ভাবে স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে মীমাংসা করবেন যাতে অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি না হয়।’

লোকবল সংকটসহ স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে অনেক সমস্যা রয়েছে জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘আমি (ডিসিদের) বলেছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে আরও ১০ হাজার ডাক্তার পর্যায়ক্রমে দেয়া হবে যারা বিভিন্ন জেলা হাসপাতাল বা উপজেলা হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করবেন। আমি বিশ্বাস করি জেলা প্রশাসকরা তাদের দায়িত্বের পাশাপাশি স্বাস্থ্যটাকে বেশি গুরুত্ব দেবেন।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •