স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে সকলকে দায়িত্ব পালন করতে হবে- চবি উপাচার্য

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশনার আলোকে ‘জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস’ উদযাপন উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উদ্যোগে ২৩ জুলাই চ.বি. উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভাষণ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির ভাষণ দেন চ.বি. উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।

উপাচার্য তাঁর ভাষণে জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে শুভেচ্ছা ও স্বাগত জানান। তিনি এ দিবসের উদ্দেশ্য, লক্ষ্য, গুরুত্ব ও তাৎপর্য আলোকপাত করে বলেন, সৃজনশীলতা, মননশীলতা ও মানবিকতাকে ধারণ করে নাগরিক সেবা, প্রাতিষ্ঠানিক সেবা ও অভ্যন্তরীন সেবা নিশ্চিত করাই হচ্ছে এ দিবসের অন্যতম লক্ষ্য। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে বাংলাদেশে সর্বপ্রথম জাতীয়ভাবে এ দিবসটি উদযাপনের সরকারী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনাকে মাননীয় উপাচার্য বিশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি আরও বলেন, দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা বিধিবদ্ধ আইন, নীতি-নৈতিকতা সর্বোপরি বিবেকপ্রসূত হয়ে দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সর্বোচ্চ আন্তরিক হবেন এটাই প্রত্যাশিত। দায়িত্ব পালনে সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে সকলকে নিজের মুখোমুখি হয়ে আত্মজিজ্ঞাসাই হবে এ দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়। মাননীয় উপাচার্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি কল্যাণমুখী ও জনসেবামূলক উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে স্ব স্ব দায়িত্ব পালনে সর্বোচ্চ আন্তরিক ও নিবেদিত হওয়ার আহবান জানান।

উপ-উপাচার্য তাঁর ভাষণে গণতন্ত্রের অতন্দ্র প্রহরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে প্রজাতন্ত্রের সর্বস্তরের কর্মচারীদের দেশ সেবায় স্ব স্ব দায়িত্ব পালনে কার্যকর ও দৃশ্যমান অবদান রাখার আহবান জানান।

চ.বি. রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কামরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চ.বি. কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মিহির কুমার রায়, মাস্টার দা সূর্যসেন হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. খালেদ মিসবাহুজ্জামান এবং বাংলা বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মহীবুল আজিজ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ডেপুটি রেজিস্ট্রার (তথ্য) মো. ফরহাদ হোসেন খান। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, হলসমূহের প্রভোস্ট, বিভাগীয় সভাপতি ও ইনস্টিটিউট-গবেষণা কেন্দ্রসমূহের পরিচালক, অফিস প্রধানবৃন্দ ও অফিসার সমিতির-কর্মচারী সমিতি-কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

আজ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস

চকরিয়ায় চুলার আগুনে প্রবাসির বসতঘর ভস্মীভূত, পুড়ে ছাই নগদ টাকা মালামাল

মহান স্বাধীনতা দিবসে সিবিএন’র শুভেচ্ছা

অসাধারণ এক শিক্ষণীয় গল্প

মহান স্বাধীনতা দিবসে বৃহত্তর বার্মিজ মার্কেট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির শুভেচ্ছা

প্রামাণ্যচিত্র-ব্ল্যাকআউট-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে শহীদ মিনারে গণহত্যা দিবস পালিত

মহেশখালীতে আ. লীগ-যুবলীগের গোলাগুলি, উভয় দলের অফিস ভাংচুর

রক্তিম আন্দোলনের স্রোতধারায় আমাদের স্বাধীনতাএই

শাহসূফী হযরত মাওলানা আবদুল জব্বার (রাহ.) এর ২১ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

মশার কামড়ে অতিষ্ঠ প্রেমিকের গালে প্রেমিকার থাপ্পড়!

মেয়র মুজিবের চাচা মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষা সৈনিক জালাল আহমদ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

বাবার মত আমিও জনগণের সেবা করে মরতে চাই -জুয়েল

শহীদ জাফরের নামে ডিসি’র সম্মেলন কক্ষের নামকরণ

কতটুকু ‘বিরোধী দল’ হতে পেরেছে জাতীয় পার্টি

প্রচারণায় এগিয়ে বই মার্কার প্রার্থী রশিদ মিয়া

পায়ে হেঁটে ৩ রোভারের দেড়শো কিলোমিটার পরিভ্রমণ

বদরখালীতে চুলার আগুনে পুড়েছে বসতঘর

পেকুয়ায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর ‘ভুল’ ব্যালটে ভোট গ্রহণের অভিযোগ

ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ

কক্সবাজার ইয়ুথ জলবায়ু ফোরাম কমিটি গঠিত