প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি সৌদিআরব কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, কক্সবাজার জেলা ইসলামী ছাত্রসমাজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আমানুল হক আমান বলেছেন,কক্সবাজারের কৃতি সন্তান মাওলানা নুরুল হক আরমান রহ. নেজামে ইসলাম পার্টি ও ইসলামী ঐক্যজোটের মাহসচিব হিসেবে দায়িত্বপালন করে জাতীয় পরিমন্ডলে কক্সবাজার জেলার ভাবমর্যাদা সমুন্নত করেছেন। আপন জন্মভূমি খুরুশকুলের উন্নয়নে তিনি আজীবন সোচ্চার ছিলেন। ইউনিয়নবাসীর চরম দূর্ভোগ লাঘবে শহর ও খুরুশকুলের সংযোগস্থলে বাঁকখালী নদীর ওপর সেতু নির্মাণের দাবীতে তিনিই মুখ্য ও সংগ্রামী ভূমিকা পালন করেন। আজকের খুরুশকুল সেতু সেই আন্দোলনের ফসল। এ ইউনিয়নের অভূতপূর্ব উন্নয়নে এরকম আরো অনেক কৃতিত্বপূর্ণ ভুমিকা তিনি পালন করেছেন। কীর্তিমান এ সমাজসেবক ও জাতীয় রাজনীতিবিদের একনিষ্ঠ অবদান ও ভূমিকা স্মরণীয় করে রাখার জন্য খুরুশকুলের প্রধান সড়কটি “মাওলানা নুরুল হক আরমান রহ. সড়ক” হিসেবে নামকরণ করা উচিৎ। এ ব্যাপারে তিনি ইউপি চেয়ারম্যানসসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি ও উদারতা কামনা করেন।

সংগ্রামী নেতা আলহাজ্ব আমানুল হক তাঁর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসা নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় এবং মাওলানা আরমান রহ. এর কবর যিয়ারতের পর আলোচনাকালে একথা বলেন।

১৪জুলাই, জুমাবার বিকেলে মতবিনিময় ও কবর যিয়ারতে শরীক হন, কক্সবাজার জেলা ইসলামী ছাত্রসমাজের সাবেক সভাপতি এম. নুরুল হক চকোরী, হাফেজ মুহাম্মদ সালেম, সাবেক জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোতাহেরুল ইসলাম তাহের, জেলা সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর, রামু উপজেলা সভাপতি মুহাম্মদ দিদারুল আলম, খুরুশকুল ইউনিয়ন দায়িত্বশীল আবু হানিফা মুহাম্মদ নোমান প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •