আবদুল মালেক সিকদার, রামু:

রামু রাজারকুল ইউনিয়নের ঢালার মুখ নয়া পাড়া এলাকায় বন বিভাগের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে গড়ে উঠা একটি সেমি পাকা বাড়ি ও একটি দোকান ঘর উচ্ছেদ করেছে বন বিভাগ। রবিবার (১৬জুলাই) বিকালে এই উচেছদ অভিযান চলে। উচেছদ নেতৃত্ব দেন রামু উপজেলা নিরবার্র্হী কর্মকরতা মোঃ শাহাজাহান আলী, কক্সবাজার দক্ষিন বন বিভাকের বিভাগীয় বন কর্মকরতা মোঃ আলী কবির উচেছদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন রাজারকুল রেণ্জরে এসি এফ দেওয়ান মোঃ আব্দুল হাই আজাদ রেণ্জ কর্মকরতা হারুন অর রশিদ টেকনাফ রেণ্জ কর্মকরতা তাপস কুমার দেব, রাজারকুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান ,বিট অফিসার তোহিদুর রহমান, হান্নান উজ জামান, উত্তম কুমার দাস, সার্ভেয়ার মোহাম্মদ সাখাওয়াত, সহকারী মহীউদ্দিনসহ কক্সবাজার দক্ষিন বন বিভাগের টহল দল ও রামু থানার এস.আই ইকবাল পারভেজ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপস্থিত ছিলেন। এসময় রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজাহান আলী বলেন, কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের সমন্বয় সভার সিদ্ধান্তক্রমে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। কালো হাজীর পুত্র ইমাম হোসেন, মুফিজুর রহমানের পুত্র জিল্লির রহমান প্রকাশ জিল্লু, মাদুর পুত্র আবদুল হক ছৈয়দ আহমদের পুত্র আবদুল গণি, তেচ্ছিপুল এলাকার মোহাম্মদ রফিক, রাজীব, সেলিমসহ অনেক ভূমিদস্যু, ও দালালী করে নারিকেল বাগানের সামনে নয়া পাড়া এলাকায় বনবিভাগের জায়াগা দখল করে বাড়িÑঘর নির্মাণ করে বিভিন্ন মানুষকে বিক্রয় করে রাতারাতি কোটিপতি হয়েছে। সম্প্রতি নয়া পাড়া এলাকায় বনবিভাগের জায়গায় এসব বাড়ি ও দোকান ঘর নির্মাণ করলে বনবিভাগের লোকজন তাকে বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বনবিভাগের লোকজনের উপর হামলা চালায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •