শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর:

কক্সবাজার সদর উপজেলার চৌফলদন্ডীতে বিয়ের প্রলোভনে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছেন তার স্বজনরা। এ ঘটনায় মামলা না করতে বিভিন্ন মহল থেকে চাপ সৃষ্টি করছেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছে। সংঘটিত ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ভূক্তভোগীর অসহায় পরিবার সুযোগে কোথাও অভিযোগ করতে পারছে না। অভিযোগে জানা যায়, ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে দক্ষিণ পাড়ার মৃত লেদু মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ শফির সাথে একই এলাকার জনৈক ব্যক্তির মেয়ের সাথে ৩ বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ সম্পর্ক ধরে রাখতে লম্পট শফি বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রায়শ মেয়েটির বাসায় যাওয়া আসা করত। এ সুযোগে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে মেয়েটি অন্তসত্তা হয়ে পড়লে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করে ভূক্তভোগীর পরিবার। সে কারো কথা কর্ণপাত না করে প্রতিনিয়ত মেয়েটির বাসায় যাওয়া আসা করত। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১১ জুলাই মঙ্গলবার রাতে একই কায়দায় ভূক্তভোগীর ঘরে প্রবেশ করলে মেয়ের স্বজনরা তাকে আটকে রাখে। স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় বিয়ে করবে মর্মে মুচলেকা দিয়ে চলে আসার পর প্রতিনিয়ত ঐ ভিকটিমের পরিবারকে হুমকি-ধমকি, মামলা করলে জানে মেরে ফেলারও ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ভিকটিমের পিতা। এমতাবস্থায় অসহায়ত্বের সুযোগ বুঝে প্রভাবশালী মহল থেকে হুমকি দেওয়ায় জীবনের নিরাপত্তা ও ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে এ পরিবারে। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শফির সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে কল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। স্থানীয় এমইউপি একরাম মিয়ার সাথে যোগাযোগা করলে তিনি এ ধরণের ঘটনা এখনো শুনেননি বলে জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •