সংবাদদাতা

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুর বাঁশকাটা এলাকার প্রতিবন্ধী স্কুল ছাত্রীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষনের অভিযোগে মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩জুলাই) সদর মডেল থানায় ধর্ষিতার পিতা মো: শাহ আলম বাদী হয়ে মামলটি দায়ের করেন। মামলা নং জিআর ৫৬/১৭।

মামলায় নতুন অফিস এলাকার কবির আহমদের ছেলে সাহাব উদ্দিন একমাত্র আসামী। সে ১ সন্তানের জনক।

ধর্ষিতা নাপিতখালী মাধ্যমিক স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী এবং সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত সমাজসেবা অধিদফতরের নিবন্ধিত শারীরিক প্রতিবন্ধী।

মামলার খবর পেয়ে ধর্ষিতার মা-বাবাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদি।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ১০ জুলাই রাতে ধর্ষিতার মা ইসমত আরা জরুরী কাজে মেয়ের দাদার বাড়ীতে যান। এ সুযোগে মেয়েকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় সাহাব উদ্দিন। রাতে বাড়ীতে মেয়ের দেখা না পেয়ে অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে।

পরে এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিক্তিতে পরের দিন (১২ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে নতুন অফিস বাজার এর উত্তর দিকের আশরাফ আলীর বসতবাড়ী সংলগ্ন রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করা হয়।

জেলা সদর হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ধর্ষিতার চিকিৎসা চলছে।

জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মোহাম্মদ শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, ওসিসিতে ধর্ষিতার চিকিৎসা চলছে। তার বিভিন্ন পরীক্ষা করা হয়েছে।

সদর মডেল থানার ওসি রনজিত বড়ুয়া জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়। ঘটনায় মামলা হয়েছে। তদন্ত করে ঘটনায় জড়িত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে প্রতিবন্ধী স্কুল ছাত্রীকে বৃহস্পতিবার রাতে সদর হাসপাতালে দেখতে যান জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক প্রীতম কুমার চৌধুরী। এসময় তিনি যে কোন প্রয়োজনে ধর্ষিতার পরিবারের পাশে থাকবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •