এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া
চকরিয়া উপজেলার পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী ছিনতাইয়ের ঘটনায় রোববার বিকালে চকরিয়া থানায় ৪২ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

থানার এসআই মাহাবুবুর রহমান বাদি হয়ে দায়ের করা মামলায় ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ২৫জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এসআই মাহাবুবুর রহমান।

অপরদিকে আসামী ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শনিবার রাতে চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী’র নেতৃত্বে পুলিশের অভিযানে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন,ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ চরপাড়ার নুরুল কবিরের ছেলে এরশাদ উল্লাহ (২০) ও মৃত আবু তাহেরের ছেলে আবদুল মোনাফ (৩৫)।

চকরিয়া থানায় দায়ের করা পুলিশের মামলার আর্জিতে জানা গেছে, শনিবার সকালে উপজেলার পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে কালা মিয়া হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী আবদুল কাদেরকে গ্রেপ্তার করতে যায় থানার এসআই মাহাবুবুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের ৫ সদস্যের একটিদল। ওই সময় পলাতক আসামী কাদেরকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ সিএনজি চালিত অটোরিকায় তুলে। কিন্তু তাকে থানায় আনার পথে অর্ধশতাধিক দুর্বৃত্ত আসামী বোঝাই সিএনজি গাড়িটি ঘেরাও করে ভাংচুর এবং চাঁকা কেটে দেয়।

আর্জিতে জানা গেছে ঘটনার সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে ৬ রাউন্ড গুলি ছুড়ে। এসময় হামলাকারীদের প্রহারে আহত হয় থানার এসআই মাহাবুবুর রহমান, নায়েক জুলফিকার, কনস্টেবল নায়েম, কনস্টেবল বোরহান উদ্দিন, কনস্টেবল বাপ্পারাজ ও সিএনজি চালক দেলোয়ার হোসেন।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আসামি ছিনতাইয়ের সময় গোলাগুলিতে পুলিশকে সহায়তাকারী যুবক আশেক এলাহী আরাফাত (২০), ছিনিয়ে নেয়া আসামীর মেয়ে কিশোরী খাদিজা বেগম (১৪) ও তার মা গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। আহতদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ খাদিজা বর্তমানে চট্টগ্রামে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অপর আহত যুবক আশেক এলাহীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ৫ম তলায় ভর্তি হলেও শনিবার বিকালে কাউকে না জানিয়ে তিনি হাসপাতাল থেকে পালিয়ে আত্মগোপনে চলে গেছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলন, পুলিশের ওপর হামলা ও কর্তব্য কাজে বাঁধা দেয়ার অপরাধে গতকাল রোববার থানায় ৪২ জনকে আসামী করে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তিনি বলেন, এ ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের চিহিৃত এবং তাদেরকে গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •