ইউটিউবে সাড়া ফেলেছে শর্টফিল্ম নির্মাতা ফাহিম কুদ্দুস প্রিয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
এগিয়ে যাচ্ছে কক্সবাজারের তরুণ শর্টফিল্ম নির্মাতা ফাহিম কুদ্দুস প্রিয়। সোস্যাল মিডিয়ায় যিনি ‘ফাহিম প্রিয়’ নামে পরিচিত। ইতিমধ্যে কয়েকটি শর্টফিল্মে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে তরুণ এ নির্মাতা। তবে সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘মধুনিস্যন্দ লবজ’ ফিল্মটি ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি সাড়া ফেলেছে।

ফাহিম প্রিয় নিজ উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন ‘ফাহিম প্রিয় ফিল্ম প্রোডাকশন’। এই প্রডাকশনের উদ্যোগে তরুণ নির্মাতা প্রিয় নির্মাণ করে যাচ্ছে একের পর সৃজনশীল ও দর্শকনন্দিত শর্টফিল্ম। তরুণদের নিয়ে কাজ করা এই ফিল্ম প্রডাকশন কক্সবাজারের সীমানা পেরিয়ে সাড়া ফেলেছে চট্টগ্রাম ও ঢাকায়ও। এরই মধ্যে তরুণ এ নির্মাতার ঝুলিয়ে যোগ হয়েছে দর্শকদের অকুণ্ঠ ভালবাসা ও সমর্থন। এতেই এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা খোঁজে পায় মেধাবী নির্মাতা ফাহিম প্রিয়।

কক্সবাজার সরকারি উচ্চবিদ্যালয় থেকে সফলতার সাথে ২০১৫ সালে এসএসসি পাশ করেছেন ফাহিম প্রিয়। কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে ২০১৭ সালে বাণিজ্য বিভাগ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে তিনি এখন ফলপ্রার্থী। ভবিষ্যতে দেশের শীর্ষ বিদ্যাপীঠ থেকে সর্বোচ্চ ডিগ্রি অর্জন করার স্বপ্ন রয়েছে প্রিয়’র।

তরুণ নির্মাতা ফাহিম প্রিয়’র সাথে দীর্ঘ আলাপচারিতায় উঠে এসেছে তাঁর ব্যক্তি জীবন ছাড়াও অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের নানা স্বপ্নের কথা। ভবিষ্যতে কক্সবাজারের পর্যটনশিল্প নিয়ে আরো বড় পরিসরে কাজ করার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে।

এই নির্মাতা তাঁর শর্টফিল্মের মাধ্যমে যেমন তুলে ধরছেন রোমান্টিক ভালবাসার গল্প; তেমনই তুলে আনছেন সমাজের অবহেলিত মানুষ গুলোর বাস্তব জীবন চিত্র। এছাড়াও বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের পাড়ে জন্ম নেওয়া মেধাবী ও সৃজনশীল এ নির্মাতার পর্যটনশিল্প নিয়েও কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে। কক্সবাজারের পর্যটনশিল্পকে এগিয়ে নেওয়ার স্বার্থে তাঁর মত অন্যান্য তরুণদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান প্রিয়।

সোস্যাল মিডিয়ায় বিশেষ করে ইউটিউবে যারা নিয়মিত বিচরণ করেন তাদের কাছে অধিক জনপ্রিয় নির্মাতা ফাহিম প্রিয় প্রডাকশনটি। ইতিমধ্যে চমৎকার কিছু ফিল্ম নির্মাণ করে ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তিনি। যদিও ২০১৫ সালে বন্ধুত্ব নামক একটি মিউজিক ভিডিও দিয়ে যাত্রা শুরু হয় প্রিয়’র। এরপর প্রথম ফিল্ম নির্মাণ করেন ১৮+ ণড়ঁ ঐধাব ঞড় বুঝতে হবে। তবে অপরিচিতা নামক শর্টফিল্মটি ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি সাড়া ফেলে। গেল বছর মুক্তি পাওয়া অপরিচিতা শর্ট ফিল্মটি ইউটিউবে ভিউয়ার্স পেয়েছে ৬ হাজারের বেশি। এবার আরো চমক নিয়ে রিলিজ করেছে শর্ট ফিল্ম “মধুনিস্যন্দ লবজ”। এই ফিল্মে সৃজনশীলতার আরো বিকাশ ঘটিয়েছেন তরুণ নির্মাতা প্রিয়। অবশ্য এটা নিয়ে প্রিয়ও অন্যান্য ফিল্মের চেয়ে বেশ আশাবাদি।
নির্মাতা ফাহিম প্রিয় জানান, এসব কাজের মধ্য দিয়ে মেধার বিকাশ ঘটানো সম্ভব। প্রিয় তাঁর এগিয়ে যাওয়ার পেছনের নায়ক হিসেবে দেখছেন ঘনিষ্ট কয়েকজন বন্ধুকে। যারা তাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেন।

‘মধুনিস্যন্দ লবজ’ ফিল্মের অভিনেতা মোহাম্মদ মুহি জানান, এটা একটা শিল্প। অল্প বয়স থেকেই এসব কাজ করলে মেধার বিকাশ ঘটানো সম্ভব। তিনি বলেন, মাদকের ছোবলের যেখানে তরুণ সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে সেখানে শর্টফিল্ম নির্মাণের মত কাজ তরুণদেরকে বকে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে সহযোগিতা করবে। এসব কাজে তাদেরকে নিরুৎসাহিত না করে আরো বেশি করে উৎসাহ দেওয়ার আহ্বান জানান অভিভাকদের প্রতি।

একাধিক অভিভাবকেরও একই মত, তরুণেরা লেখাপড়ার পাশাপাশি এসব সামাজিক কাজে জড়িত থাকলে সমাজের উন্নতি হয়।
‘মধুনিস্যন্দ লবজ’ টিমের সদস্যদরা হল:  মাহবুব, নিলয়, সোহাগ, আরমান, মুহি, আলিসা মুন্নি, ছোট্ট, পলি, শোভা, বাঁধন, প্রান্ত, শ্রাবন প্রমুখ।

মধুনিস্যন্দ লবজ দেখতে হলে ক্লিক করুন ইউটিউব লিংক:

সর্বশেষ সংবাদ

খুরুষ্কুলে চাঁদা না দেয়ায় সন্ত্রাসী হামলা ও বাউন্ডারী ওয়াল ভাংচুর

নিখোঁজের দুইদিন পর বৃদ্ধের ভাসমান লাশ উদ্ধার

চলতি সপ্তাহেই খালেদার জামিন : মওদুদ

ওসি মোয়াজ্জেম ঢাকায় গ্রেফতার

বিহারে তীব্র দাবদাহে ৪০ জনের মৃত্যু

বন্দীদের নাস্তায় ভুনা খিচুড়ি-হালুয়া, আসছে ফোনে কথা বলার সুযোগ

সাংবাদিক এফ এম সুমন “নোঙর” এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মনোনিত

রাঙামাটির নানিয়ারচরে ইউপিডিএফ’র তিন চাঁদাবাজ আটক

শহরের মল্লিক পাড়ায় সন্ত্রাসী হামলায় কেয়ারটেকার আহত

ফিরোজ চেয়ারম্যানের জানাযায় শোকার্তদের ঢল

ছায়া বাবা, কায়া বাবা

ভারত-পাকিস্তান লড়াইয়ে ব্যাটে বলে সেরা যারা

শুরুতেই হোঁচট খেল আর্জেন্টিনা

সফল হতে চান? মেনে চলুন বিল গেটসের ৯ পরামর্শ

ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার

বাবা দিবসের কথা

রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদ থেকে পাহাড়ি যুবকের লাশ উদ্ধার

১৫৫ বছর পর পরিবর্তিত মেন্যুতে মুখরোচক খাবার কারাবন্দিদের 

মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড বাতিল করছে সৌদি আরব!

এবছর ওমরা পালন করেছে ৭৩ লাখ ৯৩ হাজার ৬৫৭জন, শীর্ষে পাকিস্তান