সন্ত্রাসী কবির বেপরোয়া ,এবার পা কাটল স্কুল ছাত্রের

বিশেষ প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজার শহরের বাসটার্মিনালস্থ পশ্চিম লারপাড়ার মোঃ জহিরের ছেলে সন্ত্রাসী কবির দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তার রোষানল থেকে রেহায় পাচ্ছেনা ছাত্র, যুবক এমনকি বৃদ্ধারাও। এবার তার শিকার স্কুল ছাত্র রবিউল হোসেন (১৫) । আহত রবিউল হোসেন ঐ এলাকার মনছুর আলমের ছেলে এবং উত্তরণ মডেল স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্র বলে জানা যায়। গুরুতর আহত রবিউল বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এই বিষয়ে রবিউলের মা আছিয়া বেগম বাদী হয়ে গতকাল শনিবার কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ০২/৬৬৭। যা ৩৪১/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৪ নং ধারা হিসেবে বিবেচিত। এতে আসামী করা হয় পশ্চিম লারপাড়ার মোঃ জহিরের ছেলে কবির আহমদ (২৭), কোরবান আলী (২২), মোঃ হাছান (৩০) ও একই এলাকার মোহাং হোছনের ছেলে হেলাল সহ অজ্ঞাত আরোও ২/৩ জনকে।
এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামীগণ একদলভূক্ত সন্ত্রাসী, বে-আইনী অস্ত্রধারী, দখলবাজ, ইয়াবা ব্যবসায়ী ও খারাপ স্বভাবের লোক হয়। তাদের ভয়ে এলাকায় কেউ টু শব্দও করতে পারেনা। আসামীগণ আহত রবিউল আলমের মামা আব্দু ছবির বসতবাড়িতে আগুন দেওয়ার কারণে রবিউলের মামী আসামীদের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন। যার জি,আর মামলা নং ৩৩৫/১৬, ধারা- ৪৩৬/৩৪ দঃবিঃ। এই ঘটনার পর থেকে ১ নং আসামী শীর্ষ ইয়াবা ডন সন্ত্রাসী কবির আহমদ রবিউলের মামাসহ তাদের পরিবারের অপরাপর সদস্যদের বিভিন্ন হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২৩ জুন কোচিং থেকে ফেরার পথে রবিউলকে পথরোধ করে টেনে-হিছড়ে একটি বাড়ির বাউন্ডারির ভিতর নিয়ে গিয়ে ধারালো দা, হাতুড়ী, লোহার রড, ছুরি ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করতে থাকে আগে থেকেই উৎপেতে থাকা কবির, কোরবান আলী, হাছান, হেলাল সহ অজ্ঞাত আরোও কয়েকজন। এতে রবিউলের ডান পায়ের হাঁটুর নিচের অংশ (হাটুর হাঁড়) সম্পূর্ণ দ্বি-খন্ডিত হয়ে যায়। এলোপাথাড়ি আঘাতে রবিউলের মাথা, মুখমণ্ডলসহ পুরা শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায়। এসময় মা এগিয়ে আসলে আসামীরা মাকে বেধড়ক মারধর করে আহত করে। রবিউলের আত্মচিৎকারে রবিউলের মা ও অন্যান্য লোকজন এসে পড়লে আসামীরা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে চলে যায়।
রবিউলের মা আছিয়া খাতুন বলেন, আমার শিশু ছেলেটিকে সন্ত্রাসী কবির ও তার বাহিনী এভাবে আঘাত করেছে ডান পা হারিয়ে করুণ মৃত্যুশয্যা নিয়ে এখন সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মানবেতর দিন কাটাচ্ছে। আমার নিরপরাধ শিশুর উপর যারা এভাবে বর্বরতা চালিয়েছে আমি তাদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।
এই বিষয়ে অভিযুক্ত কবির আহমদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এই বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া বলেন, এজাহার দায়ের করা হয়েছে। তদন্তের জন্য এসআই আক্তারুজ্জামানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আশা করি খুব দ্রুত তদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়া যাবে। এবং দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলে আশ্বাস দেন ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া।

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার সিটি কলেজে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত

কক্সবাজার জেলা আ’লীগের উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

শহীদ মিনারে পুস্পাঞ্জলি দিয়ে শ্রদ্ধা জানালো কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়ন

ঢাকাস্থ রামু সমিতির কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস পালিত

পেকুয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা : ৩টি গাড়ী ভাংচুর, আহত-৭

শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে একাত্তরের বীর শহীদদের শ্রদ্ধা জানালো ইইডি

আমিরাবাদে ৩ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই

স্বাধীনতা দিবসে লাল সবুজের পতাকায় সৈকতকে রঙ্গীন করলো জেলা প্রশাসন

র‌্যাবে পুরস্কৃত হলেন ৫৯ জন, শীর্ষে ব্যাটালিয়ন ৭

ইসলামিক ফাউন্ডেশনে স্বাধীনতা দিবস পালন

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জেলা ছাত্রদলের আলোচনা সভা

নাইক্ষ্যংছড়িতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালন

চকরিয়ায় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

টেকনাফে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

ছাত্রলীগ নিয়ে উপাচার্য বললেন ‘এরা ছাত্র নয়, ছাত্র নামধারী জঙ্গি’

হঠাৎ থামল গাড়িবহর, তরমুজ বিক্রেতাকে ডাকলেন অর্থমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর কথা মনে করে কাঁদলেন মাহবুব তালুকদার

আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাইরাল ছবি নিয়ে বিব্রত ম্রো নেতারা

লামায় জমি নিয়ে শ্বশুর জামাইয়ের সংঘর্ষ : নারীসহ আহত ১৩