সৌদি আরবের ক্ষমতাচ্যুত ক্রাউন প্রিন্স বিন নায়েফ গৃহবন্দি

সিবিএন ডেস্ক:
সৌদি আরবের ক্ষমতাচ্যুত ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফকে তার জেদ্দা নগরীর প্রাসাদে গৃহবন্দি করা হয়েছে।

গত ২১ জুন ভোরে তাকে সরিয়ে নিজের ছেলে ৩১ বছরের মোহাম্মদ বিন সালমানকে ক্রাউন প্রিন্স ঘোষণা করেন সৌদি রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজ।

পর এক সপ্তাহ পর ক্ষমতাচ্যুত বিন নায়েফকে গৃহবন্দি করার খবর এলো।

ধারণা করা হচ্ছে, রাজার ছেলে বিন সালমানের নয়া ক্ষমতাকে সুসংহত করার জন্যই চাচাতো ভাই বিন নায়েফকে বন্দি করা হয়েছে।

সৌদি রাজ পরিবারের ঘনিষ্ঠ দুটি সূত্র মোহাম্মদ বিন নায়েফকে গৃহবন্দি করার খবর নিশ্চিত করেছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান।

এর আগে মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বিন নায়েফকে গৃহবন্দি করার খবর প্রকাশিত হয়।

এতে বলা হয়, ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর মোহাম্মদ বিন নায়েফ জেদ্দায় তার প্রাসাদে ফিরে আসেন। এরপর এর প্রহরায় নিরাপত্তায় নিয়োজিত তার অনুগত প্রহরীদের সরিয়ে দিয়ে মোহাম্মদ বিন সালমানের অনুগত প্রহরী মোতায়েন করা হয়।

এর ফলে মনে করা হচ্ছে, বিন নায়েফ এবং রাজ পরিবারে তার ঘনিষ্ঠ সদস্যদের সৌদি আরব ত্যাগ ঠেকাতে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তবে নিউইয়র্ক টাইমসের এ খবর মোটেই সত্য নয় বলে সৌদির একজন সিনিয়র কর্মকর্তা দাবি করেছেন বলে জানায় গার্ডিয়ান।

অন্য একজন কর্মকর্তা বলেন, এখন আসলে পালাবদলের সময়। মোহাম্মদ বিন সালমান কোনো ধরনের ঝুঁকি নিতে চান না। এটি গৃহবন্দিত্ব নয়। মোটেই এরকম কিছু নয়।

উল্লেখ্য, মোহাম্মদ বিন নায়েফ গত ১৫ বছর ধরে সৌদি আরবের সবচেয়ে প্রভাবশালী নিরাপত্তা কর্মকর্তা ছিলেন।

২০১৫ সালের জানুয়ারিতে প্রয়াত রাজা আবদুল্লাহ বিন আবদুল আজিজের মেয়াদকালে তিনি সৌদির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন।

পরে নতুন রাজা সালমান ক্ষমতাগ্রহণের পর বিন নায়েফকে সৌদির ক্রাউন প্রিন্স ঘোষণা করা হয়।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে হামলার পর জঙ্গি সংগঠন আল কায়েদা দমনে মোহাম্মদ বিন নায়েফ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

তিনি যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ রক্ষা করে আসছিলেন। সৌদির মিত্ররা তাকে একজন নির্ভর করার মতো বিশ্বাসযোগ্য ব্যক্তি মনে করতো।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রশ্নে অস্পষ্ট অবস্থান আসিয়ান মন্ত্রীদের

কক্সবাজারে ইয়াবা কারবারিদের আত্মসমর্পণ জানুয়ারির শেষে: মন্ত্রী

ঈদগাঁও রিপোর্টার্স সোসাইটির নতুন কমিটি

দলের করণীয় বললেন মওদুদ

সরকারের উন্নয়নের বার্তা ছড়িয়ে দিতে যোগ্য কান্ডারী কছির

উন্নয়ন ও জনসেবায় চকরিয়া-পেকুয়াবাসিকে আস্থার প্রতিদান দিব- জাফর আলম এমপি

বিক্ষুব্ধ বাংলাদেশি শ্রমিকদের আক্রমণের শিকার কুয়েত বাংলাদেশ দূতাবাসে

হুইল চেয়ারে মুহিত, পাশে নেই সুসময়ের বন্ধুরা

ভারত থেকে পালিয়ে আসা ১৩শ’ রোহিঙ্গা এখন বাংলাদেশে

উপজেলা নির্বাচনে ‘স্বতন্ত্রভাবে’ অংশ নেবে বিএনপি

ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা হিমুর ব্যাপক গনসংযোগ

চট্টগ্রামে ৩টি হাইটেক পার্ক হচ্ছে

সংরক্ষিত আসনে এমপি চান মহেশখালীর মেয়ে প্রভাষক রুবি

ঈদগাঁওতে নৌকার চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশী রাশেদের গণসংযোগ

অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখরিত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ১১

গণিত ছাড়া জীবনই অচল : জেলা প্রশাসক

উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, চালক আটক

শহর কৃষক লীগের সভাপতির মামলায় ওয়ার্ড সভাপতি গ্রেফতার

২৭০০ ইউনিয়নে সংযোগ তৈরি, বিনামূল্যে ইন্টারনেট ৩ মাস