মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালীস্থ গ্রীণভেলী ক্লাবে মহেশখালী কালারমারছড়া ইউনুছখালী গ্রামের আলহাজ্ব এখলাছুর রহমানের ছেলে খোকন এর বিয়ের অনুষ্ঠানে খাবারে অব্যস্থাপনার কারনে বর পক্ষ কনের পক্ষের সাথে সামান্য কথাকাটাকাটি হয়। বৃহস্পতিবার ২৯ জুন বিকেল ৩টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।
এর জের ধরে খবর পেয়ে উক্ত ক্লাবের স্বত্বধিকারী সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) চোয়ারম্যান আজিজুর রহমান সরাসরি দিনদুপুরে কমান্ডো স্টাইলে এসে অস্ত্র উচিঁয়ে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে জনমনে আতংক সৃষ্টি করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়। বিয়েতে আসা মেহমানরা প্রানবাঁচাতে দিকবিদিক ছুটে নিরাপদস্থানে আশ্রয় নেয়।
এঘটনায় ক্ষোভে প্রভাবশালী মালিকের বিরুদ্ধে অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। যার কারনে সোস্যাল মিডিয়া ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অনেকে বলছে অস্ত্রটি বৈধ নাকি অবৈধ? বৈধ হলেও এরকম ঘটনা সৃষ্টি করা মালিক পক্ষের জন্য ভাল নয়। তিনি চাইলে কথা বলে অনুরোধ করে দুুই পক্ষকে শান্ত করতে পারতেন। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনের নজরদারী প্রয়োজন।
অপরদিকে সুরাজপুর মানিকপুরের চেয়ারম্যান আজিমুল হক জানিয়েছেন, দুপুরে ভেওলার দুবাই রফিকের ভাতিজির বিয়ে ছিল এবং একইদিন রাতে তার (আজিম) মেয়ের বিয়ে ছিল। কিন্তু দুপুরের বিয়েতে মহেশখালী থেকে আসা দুবাই রফিক মেয়ের শ্বাশুড় বাড়ি পক্ষের ৫ শতের অধিক অতিরিক্ত লোকজন আসায় খাবারে ঘাটতি পরে যায়। ফলে তার মেয়ের বিবাহের রাতের অনুষ্ঠানের জন্য আয়োজন করা খাবার নিয়ে মহেশখালী থেকে আসা লোকজন কাড়াকাড়ি শুরু করে। পরে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে যায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •