বিশেষ সংবাদদাতা:
ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে সদরের খুরুশকুলে ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। ২৮ জুন সকাল ১১টার দিকে খুরুশকুল মনুপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।
আহতরা হচ্ছেন- কক্সবাজার সদর ছাত্র সমাজের যুগ্ম-সাধারণ ওই এলাকার মোঃ শফি প্রকাশ বাইলার ছেলে সম্পাদক খোরশেদ আলম (৩২) হারুন (১৮), শাহেদ (১৪), ফরিদুল আলমের ছেলে আলাউদ্দিন (২০), লোকমান হাকিমের ছেলে আশরাফ (২৫)।
আহতদের মধ্যে শাহেদ ছাড়া বাকী ৩ জনকে চমেক হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। সেখানে হারুনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।
এ ঘটনায় ৬ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা হয়েছে।
আহত খোরশেদ আলমের ভাই মোহাম্মদ মোরশেদ বাদী হয়ে ২৯ জুন মামলাটি করেন। মামলা নং-১০২/১৭।
মামলার আসামীরা হচ্ছে- একই এলাকার আবু ছৈয়দের ছেলে হায়দার আলী (৩০), মোরশেদ আলম (২৮), খোরশেদ আলম, মোঃ জাহেদ (২২), মনছুর (২৮) মুজাফফরের ছেলে আবু ছৈয়দ (৫৫)।
মামলার বাদী মোহাম্মদ মোরশেদ বলেন, মনুপাড়া ছয় কানি (খেলার মাঠ) এলাকায় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে আমার ছোট ভাই শাহেদকে স্বশস্ত্র মারধর করা হয়। এতে তার ডান হাতের কনুইসহ প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা হাসপাতাল পাঠায়। এ সময় স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলায় আরো ৪ জন আহত হয়।
এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি রনজিত বড়ুয়ার কাছে জানতে চাইলে বলেন, ঘটনার বিষয়ে মামলা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।কোন অপরাধীকে ছাড় দেয়া হবেনা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মামলার প্রধান আসামী হায়দার আলী একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে পুলিশ এসল্টসহ অন্তত অর্ধডজন মামলা রয়েছে। তার কারণে এলাকার অসংখ্য মানুষ হয়রানীর শিকার। তাকেসহ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছে ভুক্তভোগীরা।
এদিকে চিহ্নিত সন্ত্রাসী হায়দার আলীর নেতৃত্বে জাতীয় ছাত্র সমাজ নেতা খোরশেদ আলমের উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জেলা জাতীয় ছাত্র সমাজ।
২৮ জুন রাত ৮টার দিকে শহরের লালদীঘিরপাড়স্থ দলীয় কার্যালয়ে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন যুব সংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক ছাত্র নেতা দেলোয়ার হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জাতীয় ছাত্র সমাজের জেলা সাধারণ সম্পাদক মোঃ বেলাল উদ্দিন।
ছাত্র সমাজের শহর সভাপতি সাজ্জাদ হোসাইনের পরিচালনায় বিক্ষোভ সভায় বক্তব্য রাখেন- সদর শাখার সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার আলম, শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সদর শাখার যুগ্ম-সম্পাদক মোরশেদ আলম প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে সন্ত্রাসী হায়দারসহ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত সকলকে দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান। অন্যথায় কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •