সিবিএন প্রতিবেদক :

কক্সবাজার উখিয়ার কুতুপালংএ অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিককে ছুরি মেরে হত্যার চেষ্টা করেছে সন্ত্রাসীরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে কুতুপালং এর অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের খেলার মাঠের পাশে চায়ের দোকানে ঢুকে ক্যাম্প কমিটির চেয়ারম্যানকে হত্যার উদ্দেশ্যে গলায় উপর্যুপুরি ছুরির আঘাত করে সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীরা আবু সিদ্দিক কে মৃত ভেবে ফেলে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

আবু সিদ্দিক উখিয়ার কুতুপালংএর ৭০ হাজার রোহিঙ্গার প্রতিনিধিত্ব করে আসছিলো। কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প কমিটির চেয়ারম্যান ও রোহিঙ্গা নেতা আবু সিদ্দিককে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার আশংকা করা হচ্ছে। পরিকল্পিত ভাবে রোহিঙ্গাকে উস্কে দিয়ে কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে।
এর আগে ১৩ জুন রাতে চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিকের অনুসারি ও ক্যাম্প কমিটির সেক্রেটারি আইয়ুব মাঝি ও সেলিম কে অপহরণ করা হয়। অপহরণের ২ দিন পর সেলিমের মৃত দেহ উদ্ধার করা হলেও এখনো নিখোজ আইয়ুব মাঝি। অল্প দিনের ব্যবধানে ৩ রোহিঙ্গা নেতাকে অপহরণ, হত্যা ও হত্যা চেষ্টাকে পরিকল্পিত বলে মনে করছেন রোহিঙ্গা নেতারা।

উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানিয়েছেন, অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিক রোহিঙ্গাদের দাবি আদায়ের পাশাপাশি রোহিঙ্গা শিবিরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগীতা করতো। সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিত ভাবে তার গলায় ছুরি মেরেছে। আবু সিদ্দিককে হত্যা চেষ্টায় জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •