আরটিভি অনলাইন :
সৌদি আরবে সোশ্যাল মিডিয়া বন্ধ, চায়নাতে ফেসবুক বন্ধ। আমাদের দেশে এগুলো বন্ধ করা হবে না কেন। রাত ১০টা বা ১১টার পর এগুলো বন্ধ করে দিতে হবে। বললেন বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ।
বুধবার জাতীয় সংসদে বাজেট আলোচনায় এসব কথা বলেন তিনি।
রওশন বলেন, রাতের বেলায় ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ, ভাইবারের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো ব্যবহারের কারণে ছেলে-মেয়েরা দেরি করে ঘুম থেকে উঠছে এবং এ কারণে তাদের পড়াশোনা হচ্ছে না।
তিনি বলেন, তারা সারারাত ধরে এসব দেখে, ১২টার সময় ঘুম থেকে উঠে। এটা বন্ধ করতে হবে গভর্নমেন্টের পক্ষ থেকে। তাহলে ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করবে এবং সকালে ঠিক সময় ঘুম থেকে উঠবে। নইলে শিক্ষার মান চেষ্টা করলেও বাড়ানো যাবে না। এগুলো বন্ধ করে দিতে হবে।
ভেজালবিরোধী অভিযানে সাজার পরিমাণ নিয়ে প্রশ্ন তুলে রওশন বলেন, ম্যাজিস্ট্রেট যায়, তারা ধরে, ১০ হাজার, ১২ হাজার ১৫ হাজার জরিমানা দেয়। এটা যথেষ্ট না। কাউকে গুলি করে মারা আর ভেজাল করে মারা একই তো। পুরো জাতিকে মেরে ফেলছে। এটা কোনো ব্যক্তি বিশেষের না। এগুলো আপনাদেরকে বন্ধ করতে হবে।
সবার কর্মসংস্থান নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, কর্মসংস্থান না হলে ছেলেপুলে বিপথে যাবে। ছেলেমেয়েরা ড্রাগ খাবে, নইলে জঙ্গি হবে।
পোশাক শিল্পে টানা আট থেকে ১০ ঘণ্টা কাজ করতে হয় জানিয়ে রওশন বলেন, এ কারণে তারা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। ফলে তারা অনেকেই কৃষিখাতে ফিরে যাচ্ছে। তাদের জন্যও কাজের সুযোগ তৈরির তাগাদা দেন রওশন এরশাদ।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •