নিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও বাজারে এক পকেটমারকে হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে উত্তেজিত জনতা। ২৫ জুন (রবিবার) রাত ৮ টায় বাজারের পশ্চিম গলিতে এ ঘটনা ঘটে। তবে পুলিশ আসার আগেই ধৃত পকেটমার  শামশুদ্দীন সুকৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। সে ইসলামাবাদ ইউনিয়নের উত্তর সাতজোলাকাটা গ্রামের মৃত মমতাজ আহমদের ছেলে বলে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঈদ বাজারের ব্যস্ততার সময় বাজারে আগত নারী-পুরুষরা কেনাকাটায় ব্যস্ত ছিল। বাজারের পশ্চিম গলিস্হ একটি মার্কেটের কসমেটিকস দোকানে এ সময় ভীড়ের মধ্যে এক মহিলার ভ্যানিটি ব্যাগে হাত দিয়ে প্রথমে দামী মোবাইল ফোন তুলে নেয়ার পর আবার হাত দিয়ে টাকা তুলে নিচ্ছিল সে। ব্যাপারটি মহিলার ছেলে দেখতে পেয়ে চিৎকার দিলে উপস্হিত জনগন শামসু চোরাকে হাতেনাতে আটক করে গনধোলাই দেয় ও আটকে রাখে।  এসময় সে চুরির কথা স্বীকার করে। এরপর পুলিশকে ফোন করার আগেই তার বড়ভাই মনজুর বৈদ্য এসে ব্যাপারটি সমাধানের আশ্বাস দিয়ে শামসু চোরাকে চলে যাওয়ার সুযোগ দেয় ও টয়লেটে যাওয়ার নাম করে কিছুক্ষন পর নিজেও পালিয়ে যায়।
এলাকাবাসী জানান, শামসুদ্দীন পেশাদার পকেটমার, এর আগেও সে চুরির অপরাধে বিভিন্ন জায়গায় ধরা পড়েছিল সে। আর তার ভাই মনজুর বৈদ্য জ্বীনের বাদশাহ ও প্রতারক হিসাবে এলাকায় পরিচিত।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •