সিবিএন
কুতুবদিয়া উত্তর ধুরুং সতরুদ্দিনপাড়ায় শ্বশুরবাড়ী থেকে রুনা আক্তার (২৩) নামে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে স্বজনেরা। নিহতের স্বামী সিরাজুল ইসলামসহ শ্বশুরালয়ের সবাই ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে। সুরতহাল রিপোর্টের জন্য লাশটি জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনায় জড়িত কেউ আটক হয়নি। হতভাগিনী গৃহবধূ রুনা ১০ মাস বয়সী এক ছেলে সন্তানের জননী।
সুত্র জানায়, ইউনিয়নের দক্ষিণ ধুরুং নয়াপাড়া এলাকার মহিউদ্দিনের মেয়ে রুনা আক্তারের সাথে ২ বছর আগে সিরাজুল মোস্তফা মানিকের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য রুনাকে বেশ কয়েকবার মারধর করে স্বামী। পারিবারিক মনোমালিন্য থেকে তাকে হত্যা করা হয় বলে এলাকাবাসীর ধারণা।
নিহতের চাচা ছলিম উল্লাহ বলেন, স্থানীয় ইসমাইল নামের এক ব্যক্তির দেয়া খবরের ভিক্তিতে রুনা আক্তারের মরদেহ শ্বশুরালয় থেকে উদ্ধার করি। এ সময় লাশ মাটিতে শায়িত ছিল। ঘটনার সঙ্গে স্বামীসহ শ্বশরবাড়ীর সবাই জড়িত থাকার কথা এলাকাবাসী জানিয়েছে। এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে, ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে।
কুতুবদিয়া থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •