খুটাখালী রাবারড্যামে নির্বিচারে বালু উত্তোলন

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও:
চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে নির্বিচারে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে রাবার ড্যাম ছড়া তীরবর্তী বাসিন্দাদের বসতবাড়ি ও ফসলি জমি বিলিন হয়ে নি:স্ব হচ্ছে মানুষ। প্রশাসনের নির্বিকার আচরনে বেঁচে থাকার শেষ আশ্রয়স্থল হারিয়েছেন অনেকে। ভাঙ্গনের কবল থেকে ঘর বাড়ি বাঁচাতে প্রতিবাদ করলে বালু সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী ও তাদের ভাড়াটিয়া বাহীনির মারধর ও বাড়ী ঘরে হামলার শিকার হচ্ছেন নিরীহ গ্রামবাসি।

উপজেলার খুটাখালী রাবারড্যাম খাস ঘোনা এলাকা উন্নতমানের বালু সরবরাহের বিশাল খনি হিসাবে পরিচিত বিশাল আকৃতির বালু মহাল। এসব এলাকা ইজারা না হওয়ার সুযোগে কোটি কোটি টাকার বালু লুটে নিচ্ছে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটগুলো। জোর যার বালু মহাল তার এই নীতিতে ভর করে খুটাখালী রাবার ড্যাম ছড়ায় বালু মহালে চলছে বালু লুটের ঘটনা। নানামুখী ক্ষতির মুখেথাকা ছড়া তীরবর্তী এলাকাবাসির ও জনপ্রতিনিধিদের বাদ প্রতিবাদকে তোয়াক্কা করেননা বালু ব্যবসায়ীরা।

সূত্রে জানা যায়, রাবার ড্যাম খাস ঘোনা বালু মহাল ইজারা দেয়া হয়নি। বালু ব্যবসায়ী ও সিন্ডিকেটের নেতা কর্মীরা ভাগবাটোয়ারা করে চালাচ্ছে নির্বিচারে বালূ উত্তোলন ও বিক্রি। প্রশাসনের নির্বিকার ভূমিকায় এসব পয়েন্টে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বছরের পর বছর ধরে চলছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার বালু বিক্রি করছে রাবার ড্যাম পয়েন্টের বালু ব্যবসায়ী ও তাদের দোসররা। এতে সরকার প্রতি বছর কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে। জোটবদ্ধ হয়ে নির্বিচারে বালু উত্তোলন করায় নদীতে বিলিন হচ্ছে রাবার ড্যাম ও তীরবর্তী বাসিন্দাদের বসতবাড়ী, কবরস্থান, মসজিদসহ নানা স্থাপনা। যার কারনে প্রতি বছর কমছে এসব এলাকার আয়তন।

এলাকাবাসির অভিযোগ, প্রশাসন বালু ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করে বালু উত্তোলন বন্ধের নির্দেশ দিলেও বালু ব্যবসায়ীরা তা সাময়িক বন্ধ রেখে ফের নির্বিচারে বালু উত্তোলনের কারণে ছড়ায় বিলিন হচ্ছে চিংড়িঘের, ঘর বাড়ি, ফসলী জমি ও রাস্তাঘাট। ধসের আশংকা দেখা দিয়েছে ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের খাসঘোনা গ্রাম রক্ষা বাঁধ। মাঝে মধ্যে প্রশাসনের তৎপরতা দেখা গেলেও এক দিনের জন্য গত কয়েক বছরে বালু উত্তোলন বন্ধ হয়নি বলে ভূক্তভোগীরা জানিয়েছেন।

তারা আরো জানান, স্থানীয় জব্বার, ইদ্রীস, বশির, রহিম সিন্ডিকেট তথা বালু লুটেরাদের নিজ নিজ ভাড়াটে বাহিনী রয়েছে। ঐ বাহিনী মূলত বালু সিন্ডিকেটের হয়ে বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে সোচ্ছার এলাকাবাসীর মুখ বন্ধ করার কাজে ব্যস্ত থাকে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, সারা বছর বালু মহালে এলাকায় বিরাজমান গ্র“ফগুলোর মধ্যে দ্বন্দ্ব সংঘাত সংঘর্ষ লেগেই থাকে। এ পর্যন্ত বালু মহালে আধিপাত্য বিস্তার ও বিভিন্ন সংঘর্ষে অর্ধ শতাধিক লোক আহত হয়েছে।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

লালদীঘির পাড় পতিতার হাট!

মহেশখালীতে সন্ত্রাসীদের দায়ের কোপে পানচাষি নিহত

টমটমের শহরে টমটম উধাও

সিঙ্গাপুরে যেমন আছেন এরশাদ

রোহিঙ্গা সংকটে ২০১৯ সালে প্রয়োজন ৯২ কোটি ডলার

আফগান সেনা ঘাঁটিতে তালেবান হামলা, নিহত শতাধিক

উপজেলা নির্বাচনে তৃণমূলের মতামতেই প্রার্থী দেবে আ. লীগ

বিনিয়োগ বাড়াতে আসছে নতুন মুদ্রানীতি

কুল চাষে স্বাবলম্বী হচ্ছে চাষীরা

সীমান্তে পাকা স্থাপনা নির্মাণে মিয়ানমারের দুঃখ প্রকাশ

নাইক্ষ্যংছড়ি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ারকে আমিরাতে সংবর্ধনা

রিহ্যাব শারজাহ মেলায় অংশ নিচ্ছে ৫০ কোম্পানি ও ১০ ব্যাংক

হোপ হসপিটালে পোড়া রোগীদের সার্জারি ক্যাম্প

রামু কলেজে উগ্রবাদ-সহিংসতা প্রতিরোধে বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও ওরিয়েন্টেশন

আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্ক নেই ওলামা লীগের

বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা

চুরি যাওয়া মোবাইল লক করে দেওয়ার সেবা চালু করছে বিটিআরসি

মহেশখালীতে বসতি উচ্ছেদ করে কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের রাস্তা নির্মাণ, উৎকন্ঠা

ফেরিওয়ালা