হুমকিতে পড়তে পারে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন

নিউজ ডেস্ক:
যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় বাজেটে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে ১০০ কোটি মার্কিন ডলার কমানোর প্রস্তাব করেছে। বর্তমানে মিশনের এক-চতুর্থাংশ খরচ বহন করে দেশটি। এ অবস্থায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা ব্যক্ত করেছেন জাতিসংঘের কর্মকর্তারা। গত বৃহস্পতিবার ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাজেট কমানোর প্রস্তাব আন্তর্জাতিক সংস্থাটির মানবিক সহায়তা কার্যক্রম চালিয়ে নেওয়া একেবারেই অসম্ভব হয়ে পড়বে। মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বলেন, ‘আমাদের বর্তমান অবস্থা থেকে প্রস্তাবিত বাজেটের দিকে তাকালে বোঝা যাবে যে বিশ্বব্যাপী শান্তিরক্ষা,উন্নয়ন, মানবাধিকার ও মানবিক সহায়তা কার্যক্রম এগিয়ে নিতে জাতিসংঘের কার্যক্রম অব্যাহত রাখা একেবারেই অসম্ভব হয়ে পড়বে। ’

জাতিসংঘের বার্ষিক বাজেটের বৃহত্তম জোগানদাতা হলো যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি জাতিসংঘের ৫৪০ কোটি মার্কিন ডলারের নিয়মিত বাজেটের ২৫ শতাংশ প্রদান করে। আর শান্তিরক্ষা মিশনের জন্য আলাদা ৭৮০ কোটি ডলার বাজেটের সাড়ে ২৮ শতাংশও অর্থের জোগান দেয় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চাচ্ছেন জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের বাজেট ২৫ শতাংশ কমিয়ে আনতে।

যুক্তরাষ্ট্রের ১ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া অর্থবছরের বাজেট গত সপ্তাহের শুরুর দিকে পেশ করা হয়েছে। এতে দেশটির কূটনৈতিক কার্যক্রম ও ত্রাণ সহায়তা খাতে আগের বারের চেয়ে ৩৩ শতাংশ বা প্রায় এক হাজার ৯০০ কোটি মার্কিন ডলার বরাদ্দ কমানোর প্রস্তাব করা হয়। প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়, যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় অর্থ সহায়তা ১০০ কোটি ডলার বা ৫০ শতাংশ কমিয়ে দেবে। এ ছাড়া দেশটি জাতিসংঘ শিশু সংস্থা ইউনিসেফ এবং জনসংখ্যা সংস্থা ইউএনএফপিএসহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থায় চাঁদার পরিমাণও কমাবে।

জাতিংঘের সংস্কারের লক্ষ্য : বাজেট কাটছাঁট বিষয়ে গত মঙ্গলবার জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের দূত নিকি হেলি এক বিবৃতিতে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র সরকারের বাজেট সেই বাস্তবতাকে প্রতিফলিত করছে, যে সম্পদ সীমাহীন নয়। একই সঙ্গে তিনিও ট্রাম্পের মতো জাতিসংঘের সংস্কারের বিষয়েই চাপ দিয়েছেন, বিশেষ করে ১৬টি শান্তিরক্ষা মিশনের পরিচালনা নিয়ে।

এ বিষয়ে মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র বলেন, ‘সংস্কার প্রয়োজনীয়তার ব্যাপারে তিনি (নিকি হেলি) খুবই গুরুত্বপূর্ণ বক্তায় পরিণত হয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি লেগে আছেন। জাতিসংঘ সংস্কারের কাজ অব্যাহত রাখাতেও তিনি খুব প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ’

ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, জাতিসংঘের ৭৮০ কোটি ডলারের শান্তিরক্ষা কার্যক্রম বাজেট দিয়ে ১৬টি মিশন, আঞ্চলিক কেন্দ্র, লজিস্টিক ঘাঁটি এবং এক লাখ ১৩ হাজার সেনা সদস্য মোতায়েনের খরচ বহন করা হয়। এর মধ্যে কঙ্গো, দক্ষিণ সুদান এবং সুদানের দারফুরের তিনটি মিশনের প্রতিটিতে ১০০ কোটির বেশি মার্কিন ডলার করে খরচ হচ্ছে। জাতিসংঘ শিগগিরই হাইতি, আইভরি কোস্ট ও লাইবেরিয়াতে মিশন স্থগিত করবে।

প্রসঙ্গত, জাতিসংঘের কিছু শান্তিরক্ষা মিশন তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে। হাইতিতে পরিচালিত মিশন সে দেশে ২০১০ সালের ভূমিকম্পের পর কলেরা ছড়িয়ে পড়া রোধে ব্যর্থ হয়েছে। এ ছাড়া কিছু শান্তিরক্ষীর বিরুদ্ধে নিপীড়নমূলক সেক্স নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার অভিযোগ রয়েছে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

মহেশখালীতে আদিনাথ ও সোনাদিয়া পরিদর্শন করলেন মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার

পেকুয়া জীম সেন্টারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

২৩ সেপ্টেম্বর ওবাইদুল কাদেরের আগমন উপলক্ষে পেকুয়ায় প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন

পেকুয়ায় ৬দিন ধরে খোঁজ নেই রিমা আকতারের

রে‌ডি‌য়েন্ট ফিস ওয়ার্ল্ডের মাধ্য‌মে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নতুন প্রজ‌ন্মের কা‌ছে পৌঁছা‌বে -মোস্তফা জব্বার

অনূর্ধ ১৭ ফুটবলে সহোদরের ২ গোলে মহেশখালী চ্যাম্পিয়ন

টাস্কফোর্সের অভিযানঃ ৪৫০০ ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে ৭৫৫০টি ইয়াবাসহ দুইজন আটক

এলোমেলো রাজনীতির খোলামেলা আলোচনা

কক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরে পেলেন পর্যটক

সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতীয় ঐক্য

সঠিক কথা বলায় বিচারপতি সিনহাকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছে সরকার : সুপ্রিম কোর্ট বার

সিনেমায় নাম লেখালেন কোহলি

যুক্তরাষ্ট্রের কথা শুনছে না মিয়ানমার

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহতের সংখ্যা শতাধিক

যশোরের বেনাপোল ঘিবা সীমান্তে পিস্তল,গুলি, ম্যাগাজিন ও গাঁজাসহ আটক-১

তরুণদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়াটা অনেক বেশি জরুরি- কক্সবাজারে মোস্তফা জব্বার

চলন্ত অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার, দগ্ধ হয়ে নিহত ৪

খরুলিয়ায় বখাটেকে পুলিশে দিলো জনতা, রাম দা উদ্ধার

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ