চকরিয়া পৌরশহরে অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও দুইশ’ ভাসমান দোকান ফের উচ্ছেদ

 

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া

রমজান মাসের শুরুতে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরে যানজট থেকে জনদুর্ভোগ কমাতে আবারও শুদ্ধি অভিযানে নেমেছে চকরিয়া উপজেলা ও পৌর প্রশাসন। শুক্রবার সকালে অভিযানের শুরুতে চকরিয়া পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটি এলাকা থেকে ফের উচ্ছেদ করা হয়েছে সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ফুটপাতের অন্তত দুই শতাধিক ভাসমান দোকান।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম, পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী ও থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রশাসনের এ উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ, চকরিয়া শহর এলাকার ট্রাফিক সার্জেন্ট এসআই নিজাম উদ্দিন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, পৌর কাউন্সিলর মকছুদুল হক মধু, মুজিবুল হক মুজিব, কাউন্সিলর রেজাউল করিম, কাউন্সিলর জাফর আলম কালু, কমিউনিটি পুলিশের সুপারভাইজার জালাল উদ্দিন মানিক এবং উপজেলা প্রশাসন ও পৌরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, পৌরসভাটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে চকরিয়া পৌরশহরের ভেতরে আরকান মহাসড়ক দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে বাস, জীপ সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম গাড়ির অবৈধ পরিবহন কাউন্টার। বর্তমানে শহরের চিরিঙ্গা পুরাতন বাস ষ্টেশনে শ্যামলী পরিবহন, শাহ আমিন, হানিফ চেয়ারকোচ, ঈগল পরিবহন, সৌদিয়া পরিবহনের শাখা কাউন্টার রয়েছে। এসআলম পরিবহনের রয়েছে নিজস্ব কাউন্টার। হাইয়েছ মাইক্রোবাস মালিক সমিতি মহাসড়ক দখল করে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম লাইনে দীর্ঘদিন ধরে চালাচ্ছেন অবৈধ পরিবহন ব্যবসা।

এসব পরিবহন কাউন্টারের পাশাপাশি মহাসড়কের দুই পাশের সড়কে এবং মার্কেটের সামনের ফুটপাত দখল করে বসানো হয়েছে অন্তত দুই শতাধিক অবৈধ ভাসমান দোকান। এ অবস্থার কারনে নিত্যদিন পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটিতে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে চরম দুভোর্গের শিকার হচ্ছে পথচারী, ব্যবসায়ী, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ শ্রেনীপ্রেশার নাগরিক।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ পরিবহন কাউন্টার উচ্ছেদ করা হলেও কতিপয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের কর্মকর্তা ও সোসাইটি ফল ব্যবসায়ী সমিতির লোকজন শহরের আভ্যন্তরে এসব পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান গড়ে তুলে লাখ লাখ টাকার চাদাবাজিতে মেতে উঠেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী বলেন, পবিত্র রমযান মাস আগমনে জনভোগান্তি কমাতে চকরিয়া শহরের নিত্যদিনের ভয়াবহ যানজট নিরশনে উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় উচ্ছেদ অভিযানটি পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানে শহরের সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি বলেন, রমজান মাসে যাতে শহর যানজটমুক্ত থাকে সেইজন্য অভিযান অব্যাহত থাকবে। আশাকরি সবশ্রেণী পেশার জনগন অভিযানের সময় প্রশাসনকে সহায়তা করবে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশের অভিযানে ৫হাজার ইয়াবা সহ আটক-২

এলাকার উন্নয়নই আমার স্বপ্ন -কাউন্সিলর সাহাব উদ্দিন সিকদার

শহীদ জাফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের ন্যায় বিচার কোথায়?

আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার : সিইসি

খাগড়াছড়িতে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, নিখোঁজ ১

সাগরে বৈরি আবহাওয়ার কবলে পড়ে ফিশিং ট্রলার ডুবি

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মুক্তগণমাধ্যমের জন্য বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে’

ফাইভ-জি মোবাইল নেটওয়ার্কে বিকিরণের ঝুঁকি বেশি?

রাখাইনে এখনো থামেনি সেনা ও মগের বর্বরতা

জাতীয় ঐক্য নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসঙ্ঘ সফরে প্রাধান্য পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

সাকা চৌধুরীর কবরের ‘শহীদ’ লেখা নামফলক অপসারণ করলো ছাত্রলীগ

তিন মাসের জন্য প্রত্যাহার আনোয়ার চৌধুরী

মনোনয়ন দৌড়ে শতাধিক ব্যবসায়ী

ফখরুল-মোশাররফ-মওদুদ যাচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশে

এবার ভারতের কাছেও শোচনীয় হার বাংলাদেশের

রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষায় ২০০ কোটি টাকা অনুদান বিশ্বব্যাংকের

বিরোধীরা সব জায়গায় সমাবেশ করতে পারবে

চাকরি না পেয়ে সুইসাইড নোট লিখে খুবি ছাত্রের আত্মহত্যা