চকরিয়া পৌরশহরে অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও দুইশ’ ভাসমান দোকান ফের উচ্ছেদ

 

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া

রমজান মাসের শুরুতে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরে যানজট থেকে জনদুর্ভোগ কমাতে আবারও শুদ্ধি অভিযানে নেমেছে চকরিয়া উপজেলা ও পৌর প্রশাসন। শুক্রবার সকালে অভিযানের শুরুতে চকরিয়া পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটি এলাকা থেকে ফের উচ্ছেদ করা হয়েছে সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ফুটপাতের অন্তত দুই শতাধিক ভাসমান দোকান।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম, পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী ও থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রশাসনের এ উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ, চকরিয়া শহর এলাকার ট্রাফিক সার্জেন্ট এসআই নিজাম উদ্দিন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, পৌর কাউন্সিলর মকছুদুল হক মধু, মুজিবুল হক মুজিব, কাউন্সিলর রেজাউল করিম, কাউন্সিলর জাফর আলম কালু, কমিউনিটি পুলিশের সুপারভাইজার জালাল উদ্দিন মানিক এবং উপজেলা প্রশাসন ও পৌরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, পৌরসভাটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে চকরিয়া পৌরশহরের ভেতরে আরকান মহাসড়ক দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে বাস, জীপ সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম গাড়ির অবৈধ পরিবহন কাউন্টার। বর্তমানে শহরের চিরিঙ্গা পুরাতন বাস ষ্টেশনে শ্যামলী পরিবহন, শাহ আমিন, হানিফ চেয়ারকোচ, ঈগল পরিবহন, সৌদিয়া পরিবহনের শাখা কাউন্টার রয়েছে। এসআলম পরিবহনের রয়েছে নিজস্ব কাউন্টার। হাইয়েছ মাইক্রোবাস মালিক সমিতি মহাসড়ক দখল করে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম লাইনে দীর্ঘদিন ধরে চালাচ্ছেন অবৈধ পরিবহন ব্যবসা।

এসব পরিবহন কাউন্টারের পাশাপাশি মহাসড়কের দুই পাশের সড়কে এবং মার্কেটের সামনের ফুটপাত দখল করে বসানো হয়েছে অন্তত দুই শতাধিক অবৈধ ভাসমান দোকান। এ অবস্থার কারনে নিত্যদিন পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটিতে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে চরম দুভোর্গের শিকার হচ্ছে পথচারী, ব্যবসায়ী, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ শ্রেনীপ্রেশার নাগরিক।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ পরিবহন কাউন্টার উচ্ছেদ করা হলেও কতিপয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের কর্মকর্তা ও সোসাইটি ফল ব্যবসায়ী সমিতির লোকজন শহরের আভ্যন্তরে এসব পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান গড়ে তুলে লাখ লাখ টাকার চাদাবাজিতে মেতে উঠেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী বলেন, পবিত্র রমযান মাস আগমনে জনভোগান্তি কমাতে চকরিয়া শহরের নিত্যদিনের ভয়াবহ যানজট নিরশনে উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় উচ্ছেদ অভিযানটি পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানে শহরের সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি বলেন, রমজান মাসে যাতে শহর যানজটমুক্ত থাকে সেইজন্য অভিযান অব্যাহত থাকবে। আশাকরি সবশ্রেণী পেশার জনগন অভিযানের সময় প্রশাসনকে সহায়তা করবে।

সর্বশেষ সংবাদ

দেশের বেকারত্ব দূরীকরনে কর্মমুখী শিক্ষা দরকার : মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলম

আ.লীগের জনপ্রিয়তা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

এক জনের কারণে ঝরছে হাজারো মানুষের চোখের পানি, বাদ নেই প্রতিবন্ধী পরিবারও

হোয়াইক্যংয়ে রোগাক্রান্তদের সুস্থতা কামনা করে স্টুডেন্ট এসোসিয়শনের দোয়া মাহফিল

কোন অপশক্তি রামুর সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে পারবে না- এমপি কমল

ছাত্র অধিকার পরিষদকে নতুনভাবে এগিয়ে নেয়ার ঘোষণা নুরের

লামায় পিকআপ দুর্ঘটনায় শিশু নিহত, আহত ৩

পেকুয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রকে মারধর

রামু উপজেলা ছাত্রদলের মতবিনিময় সভা

শফিক চেয়ারম্যানের কারামুক্তি কামনায় মসজিদে মসজিদে দোয়া

নুসরাত হত্যা: সোনাগাজী উপজেলা আ. লীগ সভাপতি আটক

চকরিয়া উপকূলীয় এলাকার শীর্ষ মাদক বিক্রেতা জিয়াবুল ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে বাংলাদেশকে চীনের সহযোগিতার আশ্বাস : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

শবেবরাত ঐতিহাসিক রজনী : যখন আসমানের দরজা সমুহ খুলে দেওয়া হয়!

নষ্টখাদ্য ক্ষতি করছে পৃথিবীকে!

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-৯

লামায় পিকআপ দূর্ঘটনায় শিশু নিহত, নারীসহ আহত- ৪

আবারো বিয়ে করছেন শ্রাবন্তী

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে লামা বৌদ্ধ সমিতির শুভেচ্ছা বিনিময়

প্রচন্ড গরম, পুড়ছে মানুষ বাড়ছে রোগি