চকরিয়া পৌরশহরে অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও দুইশ’ ভাসমান দোকান ফের উচ্ছেদ

 

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া

রমজান মাসের শুরুতে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরে যানজট থেকে জনদুর্ভোগ কমাতে আবারও শুদ্ধি অভিযানে নেমেছে চকরিয়া উপজেলা ও পৌর প্রশাসন। শুক্রবার সকালে অভিযানের শুরুতে চকরিয়া পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটি এলাকা থেকে ফের উচ্ছেদ করা হয়েছে সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ফুটপাতের অন্তত দুই শতাধিক ভাসমান দোকান।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম, পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী ও থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রশাসনের এ উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার সচিব মাস-উদ মোর্শেদ, চকরিয়া শহর এলাকার ট্রাফিক সার্জেন্ট এসআই নিজাম উদ্দিন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, পৌর কাউন্সিলর মকছুদুল হক মধু, মুজিবুল হক মুজিব, কাউন্সিলর রেজাউল করিম, কাউন্সিলর জাফর আলম কালু, কমিউনিটি পুলিশের সুপারভাইজার জালাল উদ্দিন মানিক এবং উপজেলা প্রশাসন ও পৌরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, পৌরসভাটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে চকরিয়া পৌরশহরের ভেতরে আরকান মহাসড়ক দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে বাস, জীপ সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম গাড়ির অবৈধ পরিবহন কাউন্টার। বর্তমানে শহরের চিরিঙ্গা পুরাতন বাস ষ্টেশনে শ্যামলী পরিবহন, শাহ আমিন, হানিফ চেয়ারকোচ, ঈগল পরিবহন, সৌদিয়া পরিবহনের শাখা কাউন্টার রয়েছে। এসআলম পরিবহনের রয়েছে নিজস্ব কাউন্টার। হাইয়েছ মাইক্রোবাস মালিক সমিতি মহাসড়ক দখল করে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম লাইনে দীর্ঘদিন ধরে চালাচ্ছেন অবৈধ পরিবহন ব্যবসা।

এসব পরিবহন কাউন্টারের পাশাপাশি মহাসড়কের দুই পাশের সড়কে এবং মার্কেটের সামনের ফুটপাত দখল করে বসানো হয়েছে অন্তত দুই শতাধিক অবৈধ ভাসমান দোকান। এ অবস্থার কারনে নিত্যদিন পৌরশহরের চিরিঙ্গা-সোসাইটিতে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে চরম দুভোর্গের শিকার হচ্ছে পথচারী, ব্যবসায়ী, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ শ্রেনীপ্রেশার নাগরিক।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার অভিযান চালিয়ে এসব অবৈধ পরিবহন কাউন্টার উচ্ছেদ করা হলেও কতিপয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের কর্মকর্তা ও সোসাইটি ফল ব্যবসায়ী সমিতির লোকজন শহরের আভ্যন্তরে এসব পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান গড়ে তুলে লাখ লাখ টাকার চাদাবাজিতে মেতে উঠেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী বলেন, পবিত্র রমযান মাস আগমনে জনভোগান্তি কমাতে চকরিয়া শহরের নিত্যদিনের ভয়াবহ যানজট নিরশনে উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় উচ্ছেদ অভিযানটি পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানে শহরের সব ধরণের অবৈধ পরিবহন কাউন্টার ও ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি বলেন, রমজান মাসে যাতে শহর যানজটমুক্ত থাকে সেইজন্য অভিযান অব্যাহত থাকবে। আশাকরি সবশ্রেণী পেশার জনগন অভিযানের সময় প্রশাসনকে সহায়তা করবে।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

পেকুয়া বিএনপির ১১ নেতাকর্মী কারাগারে

চবি ছাত্রের কোটি টাকা উৎস ইয়াবা ব্যবসা!

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নতুন আতঙ্ক আরাকান আর্মি

মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

চট্টগ্রামে কাভার্ড ভ্যান চাপায় কলেজছাত্রীর মৃত্যু

২৭ ফেব্রুয়ারি বন্ধ হচ্ছে ৭ দিনের নিচের নেট প্যাকেজ

পেঁপে চাষে ভাগ্য বদল!

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে চলছে চাঁন্দেরঘোনা প্রাথমিক বিদ্যালয়

পেকুয়ায় পুকুরে পড়ে দুই সন্তানের জননীর মৃত্যু

উচ্ছেদ আতঙ্কে পশ্চিম বাহারছড়ার ৫০০ পরিবার

পেকুয়ার চেয়ারম্যান ওয়াসিমসহ ৭জন কারাগারে

জীবনে সফল হতে চান? আজ থেকেই পবিত্র কোরআনের চার পরামর্শ মেনে চলুন

প্রাথমিক-ইবতেদায়ির বৃত্তির ফল মার্চের প্রথম সপ্তাহে

আইসিসির নতুন প্রধান নির্বাহী ভারতীয় মানু সনি

জামায়াতের মনোযোগ সংগঠনে

কী ঘটতে যাচ্ছে ব্রিটেনে?

বদলে গেছে ফারজানা ব্রাউনিয়ার জীবন

আত্মসমর্পণ করতে যাচ্ছে বদির ভাই ও স্বজনেরা

হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় দারুল আরক্বমের দুই ছাত্রের কৃতিত্ব

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন সালমান এফ রহমান