চাঁদ দেখা যায়নি, রবিবার রোজা

আজ  শুক্রবার (২৫ মে) বাংলাদেশের আকাশে রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে রবিবার থেকে রমজান মাসের শুরু হবে। হিজরি সনের রমজান মাসের চাঁদ দেখার সংবাদ পর্যালোচনা এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের লক্ষ্যে সভা শেষে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ধর্ম বিষয়কমন্ত্রী  ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, হিজরি সনের রমজানকে পবিত্র মাস হিসেবে গণ্য করে থাকে বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়। মাসজুড়ে রোজা রাখার পর উদযাপন করে ঈদুল ফিতর।

ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী  ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মতিউর রহমান জানান,বাংলাদেশের আকাশে কোথাও  রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। রবিবার থেকে রমজান মাসের শুরু হবে।

এদিকে রমজান মাসে খতম তারাবি পড়ার সময় সারাদেশে সকল মসজিদে একই পদ্ধতি অনুসরণ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে বলা হয়েছে, রমজান মাসে দেশের প্রায় সকল মসজিদে খতম তারাবিতে পবিত্র কোরআনের নির্দিষ্ট পরিমাণ পারা তিলাওয়াত না করার রেওয়াজ চালু আছে। তবে কোনও কোনও মসজিদে এর ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। এতে করে কর্মজীবী- যারা বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করেন, তাদের পক্ষে কোরআন খতমের ধারাবাহিকতা রক্ষা করা সম্ভব হয় না। এ অবস্থায় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের মধ্যে অতৃপ্তি ও মানসিক চাপ অনুভূত হয়। কোরআন খতমের পূর্ণ সওয়াব থেকেও তারা বঞ্চিত হন। এ পরিস্থিতি নিরসনে রমজানের প্রথম ৬ দিনে দেড় পারা করে ৯ পারা এবং বাকি ২১ দিনে ১ পারা করে ২১ পারা তিলাওয়াত করলে ২৭ রমজান রাতে, অর্থাৎ পবিত্র লাইলাতুল কদরে কোরআন খতম করা সম্ভব। এর আগে বিষয়টি নিয়ে দেশবরেণ্য আলেম, পীর-মাশায়েখ,  খতিব-ইমামদের সঙ্গে আলোচনা হলে তারাও এ পদ্ধতিতে খতম তারাবি পড়ার পক্ষে অভিমত দিয়েছিলেন এবং সে মোতাবেক অধিকাংশ মসজিদে এ পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়।এ অবস্থায় দেশের সকল মসজিদে খতম তারাবিতে প্রথম ৬ দিনে দেড় পারা করে ও পরবর্তী ২১ দিনে এক পারা করে তিলাওয়াতের মাধ্যমে পবিত্র লাইলাতুল কদরে কুরআন খতমের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মসজিদের ইমাম, মসজিদ কমিটি, মুসল্লি এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে বিনীত অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, তারাবি নামাজ ২০ রাকাত, যা রাসুলুল্লাহ্ (সা.) ও সাহাবিরা আমল করেছেন। ইসলামের প্রথম যুগ থেকে ওলামা ও ফকিহরা তা অনুসরণ এবং মসজিদুল হারাম ও মসজিদুন নববীসহ সারাবিশ্বের মুসলমানরা এভাবেই তা পালন করে আসছেন। সেই সঙ্গে তারাবিতে কোরআন তিলাওয়াতের ক্ষেত্রে উচ্চারণ স্পষ্ট হওয়া বাঞ্ছনীয়।

সর্বশেষ সংবাদ

নতুন অফিস ব্লাড ডোনার’স সোসাইটির যাত্রা, ইফতার মাহফিল

দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম ও লাভ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

রমজান মাস পূণ্য অর্জনের বসন্তকাল : আল্লামা মাহমুুদুল হক

বদরখালীতে পানির পথ খুলে ভেসে গেছে মজুদ ৩৫ হাজার মণ লবণ

বিশিষ্টজনদের সম্মানে জেলা প্রশাসনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিটির আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

নাইক্ষ্যংছড়িতে আহত পিকআপ চালকের মৃত্যু

টেকনাফ সাংবাদিক ফোরাম’র ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

কুকুরের কামড় দেয়া ছাগল জবাই করে খাসির মাংস হিসেবে বাজারে বিক্রি, ৩ জনকে কারাদণ্ড

“বাহারছড়া যুব ও ছাত্র ঐক্য পরিষদ” এর দোয়া ও ইফতার মাহফিল

কেমন ছিলো ঈদকার্ডের ঈদ

সিবিআইইউ’র আইন বিভাগের ৬ষ্ঠ ও ৭ম ব্যাচের ইফতার মাহফিল

মোদির গুজরাটে ভয়াবহ আগুন, নিহত ১৮

`কাজী নজরুল বাংলা সাহিত্যের আলোকবর্তিকা’

১৪ বাংলাদেশিসহ ভূমধ্যসাগরে ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার

পদত্যাগ করছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে

৩০ মে শপথ নেবেন মোদি

যে কারণে নিজ ঘাঁটিতে রাহুলের পরাজয়

জরুরি বৈঠক ডেকেছেন মমতা

হাসি মুখ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ