অনলাইন ডেস্ক :

সামন্ত যুগের কবুতর দিয়ে চিঠি আদান-প্রদানের গল্প আমরা অনেকেই শুনেছি। গোয়েন্দা তৎপরতায় কবুতরের ব্যবহারও বিরল নয়। কিন্তু মাদকদ্রব্য পরিবহনে কবুতরের ব্যবহার—একটু অভিনব বৈকি?

কুয়েতের শুল্ক (কাস্টমস) কর্মকর্তারা সম্প্রতি একটি কবুতর আটক করেছেন। কবুতরটির পিঠে বাঁধা ছোট্ট ব্যাগে ১৭৮টি চেতনানাশক পিল পাওয়া গেছে। তাঁদের ধারণা, কবুতরটি ইরাক থেকে সীমান্ত পার হয়ে কুয়েতে এসেছে।

ইরাকভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বাস নিউজের তথ্যমতে, কবুতরটি কুয়েতের ইরাক সীমান্তবর্তী আবদালি প্রদেশের শুল্ক বিভাগের নিকটবর্তী একটি ভবন থেকে ধরা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কবুতরটি আলোচনার ঝড় তুলেছে। টুইটার ব্যবহারকারীদের অনেকেই লিখেছেন, বিপণন ব্যবস্থার কী দারুণ উদ্ভাবন!

রেডিট ব্যবহারকারীদের অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করে লেখেন, শুল্ক কর্মকর্তারা একে গ্রেপ্তার করল কীভাবে! কবুতরটি মানুষের মধ্যে বেশ কৌতূহলের সৃষ্টি করেছে।

তবে মাদক পাচারে কবুতরের ব্যবহার এটাই প্রথম নয়। ২০১৬ সালে কোস্টারিকার কারাগারে মাদক সরবরাহের প্রচেষ্টাকালে একটি কবুতরকে ধরা হয়েছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •