ঢাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু : বিজয়ের পথে ডাক্তারের বিরুদ্ধে ঢাবি শিক্ষার্থীদের আন্দোলন

জালাল আহমদ,ঢাবি থেকে:
বিজয়ের পথে হাটছে আন্দোলন সংগ্রামের সূতিকাগার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন।ঢাবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্রী আফিয়া জাহান চৈতীর মৃত্যর জন্য সেন্ট্রাল হাসপাতালের কর্মরত ডাক্তারদের অবহেলাকে দায়ী করে অভিযুক্ত ডাক্তারদের বিরুদ্ধে বিচার বিভাগীয় তদন্ত পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য ধারাবাহিক কর্মসূচির মাধ্যমে সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে আসছেন ঢাবির শিক্ষক -শিক্ষার্থীরা।
সর্বশেষ গত ২৪ মে দুপুর ১১-১২ টা পর্যন্ত ১ ঘন্টাব্যাপী রাজু ভাস্কর্যের সামনে এক মানববন্ধনে ঢাবির কয়েক শ শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত চিকিৎসকের শাস্তির দাবিতে বিভিন্ন দাবি সম্বলিত ব্যানার,প্ল্যাকার্ড ও পোস্টার বহন করেন এবং শ্লোগান প্রদান করেন।তাদের সাথে সংহতি প্রকাশ করে
প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক এবং ঢাবির সিনেট সদস্য প্রফেসর জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন,’আমাদের ছাত্রীর অকাল মৃত্যুর জন্য সেন্ট্রাল হাসপাতালের ডাক্তারদের অবহেলাই দায়ী। ডাক্তারেরা কখনো বলেন ডেঙ্গু,কখনো বলেন লিউকোমিয়া আবার কখনো বলেন ক্যান্সার। তাই আমাদের আন্দোলন সকল ডাক্তারের বিরুদ্ধে নয়,শুধু মাত্র যাদের অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার জন্য আফিয়া জাহানের মৃত্য হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। তাই বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে অভিযুক্ত ডাক্তারদের চিহ্নিত করে তাদের শাস্তির আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি আকুল আহবান জানান তিনি’। এ সময় ব্ক্তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আফিয়া জাহানের মৃত্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর তীব্র সমালোচনা করেন।ডাক্তারদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নিলে ভবিষ্যতে আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়ার হুশিয়ারী দেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন ঢাবি শিক্ষার্থী রাসেল,সুমাইয়া বরকতুল্লাহ, আতিকুর রহমান লিংকন,দীপংকর রায়।
এ ঘোষণার কয়েক ঘন্টা পরে সেন্ট্রাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঢাবির সাথে সমঝেতায় আসতে বাধ্য হয়।হাস পাতালের সম্মেলন কক্ষে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সমঝেতার ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় ঢাবি প্রক্টর ড. আমজাদ আলী বলেন , ‘আফিয়ার মৃত্যকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে যে অনাকাঙ্ক্ষিত (ভাংচুর ) ঘটনা ঘটেছে তার জন্য আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি’। তিনি বলেন, ‘কোন কিছুতেই আমরা আফিয়াকে ফেরত পাব না। তাই হাস পাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সমঝেতা করা হয়েছে’। মানবিক কারণে হাস পাতাল কর্তৃপক্ষ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগ আফিয়ার পরিবারের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে।এ সময় তিন সদস্য বিশিষ্ট্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে । আজ তার প্রতিবেদন জমা দেয়ার কথা। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়নি।ঢাবির প্রক্টর ড. আমজাদ আলী জানান, ‘তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর সমঝেতার অংশ হিসেবে হাসপাতালের এক পরিচালক সহ নয় জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করা হবে’। ছবির ক্যাপশন: ঢাবির শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে বক্তব্য রাখছেন প্রফেসর জান্নাতুল ফেরদৌস। এ মানববন্ধনের পর সমঝেতায় আসতে বাধ্য হয় সেন্ট্রাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নতুন নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল কাদের গণি

শেখ হাসিনার বদান্যতায় মাথা গোজার ঠাঁই পেল গৃহহীন ১২৬ পরিবার

বিশ্বের সর্বাধিক হতদরিদ্র মানুষের বাস ভারতে

সবচেয়ে ‘কিউট’ কুকুরের মৃত্যু

চট্টগ্রামে ইয়াবা নিয়ে রোহিঙ্গা দম্পতিসহ গ্রেপ্তার ৪

মাদকবিরোধী অভিযানের সঙ্গে সমাজে ফেরার সুযোগও দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

টেকনাফে গ্রেপ্তার মাদকের আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

এনজিওতে স্থানীয়দের ছাঁটাই উদ্বেগের

রাখাইনে আরসা’র হামলায় ৬ বিজিপি সদস্য আহত: মিয়ানমার

সিঙ্গাপুরে গেলেন এরশাদ

উখিয়ায় দু’টি প্রতিষ্ঠানের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব

লামায় আওয়ামী লীগের আরও ৩ নেতাকর্মীর দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

কৃষি জমির মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

ভূমধ্যসাগরে পৃথক জাহাজডুবিতে নিহত ১৭০ অভিবাসী

স্থানীয় ছাঁটাইয়ের নেপথ্যে

এবার ছেলে সন্তানের মা হলেন টিউলিপ সিদ্দিক

অধ্যাপিকা এথিন রাখাইনকে সাংসদ হিসেবে দেখতে চায় কক্সবাজারবাসী

ভালো মানুষ হয়ে শিক্ষার্থীদের দেশ গঠনের কাজে অংশ নিতে হবে-অধ্যক্ষ ফজলুল করিম

চকরিয়া সরকারি কলেজে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কল্পে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

কক্সবাজার ইনস্টিটিউট ও পাবলিক লাইব্রেরির দ্রুত সংস্কারের দাবীতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন