সিবিএন

ভোটের আগের রাতে টাকা বিতরনের সময় মহেশখালী উপজেলার কালামাছড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যানপ্রার্থী (মোটর সাইকেল) তারেক বিন উসমান শরিফকে হাতেনাতে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় তারেকের তিন সহযোগীকেও আটক করা হয়। জব্দ করা হয়েছে ৭৪ হাজার টাকা ২টি মটরসাইকেল জব্দ।

সোমবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টার সময় সদরঘোনা কেন্দ্রের পাশ থেকে কোস্টগার্ড সদস্যরা তারেককে আটক করে।

জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন মটরসাইকেল মার্কার চেয়ারম্যনপ্রার্থী তারেক টাকাসহ আটক হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন।

বিজিবির সহযোগিতায় আটক ব্যাক্তিদের মহেশখালী থানায় আনা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

কোস্টগার্ডেরর হাতে তারেক আটক হওয়ার খবরে তার এলাকা কালামারছড়ার গত রাত থেকে হাজার হাজার নারীপুরুষ রাস্তায় নেমে আসে। এই সময় কয়েকশ রাউন্ড ফাকা গুলির শব্দ পাওয়া শোনা গেছে। এই সময় ৩ জন গুলিবিদ্ধ হয়। তবে কার গুলেতে এই তিনজন আহত হয়েছে তা জানা যায়নি।

আহত তিনজনের মধ্যে দুইজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। সেখানে একজনের অবস্থা আশংকাজজনক বলে জানা গেছে।

মহেশখালী থানার ওসি প্রদিপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, মাইকে গুজব ছড়িয়ে কালামারছাড়ার পরিবেশ ঘোলাটে করার চেষ্টা করা হচ্ছে। পুলিশ, বিজিবি ও কোস্টগার্ড শক্ত অবস্থানে আছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কক্সবাজারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরফাজুল হক টুটুলের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ রাতেই কালামারছড়া পৌঁছেছে।

স্বন্ত্রপ্রার্থী তারেকের ভাই এডঃ নোমান শরীফ দাবি করেছেন, সম্পূর্ন পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ষড়যন্ত্র করে কোস্টগার্ড দিয়ে মটরসাইকেল মার্কার সতন্ত্র চেয়ারম্যন প্রার্থী তারেককে আটক করা হয়েছে।

তিনি আশা করেন, জনগণ ব্যালটের মাধ্যমে তারেককে জয়ী করে ষড়যন্ত্রের দাতভাঙ্গা জবাব দিবে। এসময় তিনি ভোটারদের গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •