নাব্যতা হারানোর কারণে নৌ-দুর্ঘটনা বাড়ছে

সিবিএন
দেশে প্রবাহমান নদীগুলোর নাব্যতা হারানোর কারণে নৌ-দুর্ঘটনার পরিমাণ বাড়ছে। দুর্ঘটনা রোধ করতে নদীর ড্রেজিং ও চালকদের প্রশিক্ষণের আওতায় আনতে হবে।
নৌ-নিরাপত্ত্বা সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে শহরের পাবলিক লাইব্রেরী মাঠেট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) এর আলোচনা সভায় বক্তারা এ অভিমত জানান।
সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী মোঃ আবদুর রহমান।
বিশেষ অতিথির বক্তৃতা রাখেন, স্পেশাল অফিসার, মেরিন সেফটি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বদরুল হাসান মিটন, সদর মডেল থানার ওসি মোঃ আসলাম হোসেন।
সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহবায়ক ও টুয়াক ফাউন্ডার কমিটির চেয়ারম্যান এম এ হাসিব বাদল।
টুয়াকের ফাউন্ডার মেম্বার ও সভার পৃষ্টপোষক তোফায়েল আহমেদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তৃতা করেন জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও টুয়াকের প্রধান সমন্বয়ক মফিজুর রহমান মফিজ, ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট এস. এম কিবরিয়া খান, জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব ছৈয়দুল হক কোম্পানী, টুয়াকের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাফ উদ দৌল্লাহ আশেক প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, ২০০৪ সালের ২৩ মে চাঁদপুরে একটি নৌ-দুর্ঘটনায় ৩০০ যাত্রী মারা যায়। সেই সময় থেকে নৌ-নিরাপত্ত্বার দাবী ওঠে। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে অন্তত ৪৭টি জেলার ৭৫ সড়কে অন্তত ২০ হাজার নৌ-যান চলাচল করে।
এসব এলাকায় কোন না কোনভাবে নৌ-দুর্ঘটনা ঘটছে। এর প্রধাণ কারণ নাব্যতা সংকট। দুর্ঘটনারোধে শীঘ্রই নদী খনন ব্যবস্থা করতে হবে।
দুর্ঘটনার কারণে হিসেবে বক্তারা বলেন, অধিকাংশই ফিটনেসবিহীন নৌ-যান, নকশার সাথে বাস্তবতার অমিল, দক্ষ নৌ-চালক অভাব এবং দুর্যোগকালীন সময় সংকেত মানা হয় না।
আলোচনা সভায় টুয়াকের প্রধান সমন্বয়ক মফিজুর রহমান মফিজ বলেন, টেকনাফ-সেন্টমার্টিনের ২৫ নটিকেল মাইল অতিক্রম করে প্রবাল দ্বীপে যাচ্ছে পর্যটকেরা। সাগর পথে অনেক ঝুঁকি রয়েছে। এ পথে গভীরতা সুচক চিহ্ন ‘বয়া’ স্থাপনের জন্য বিআইডব্লিটিএ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।
তিনি বলেন, স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষ ইউনাইটেড গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করে ব্যক্তিগত ব্যবসার জেটি নির্মাণ করায় নৌ-পথের পর্যটক ও যাত্রী হয়রানী বাড়ছে। সেন্টমার্টিনের জেটিটিও অতি ঝুঁকিপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের নজর দেয়ার আহবান জানান মুফিজুর রহমান।
সভার আগে নৌ-নিরাপত্ত্বা সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান সড়ক ঘুরে পাবলিক লাইব্রেরী মাঠে পৌঁছে শেষ হয়।

সর্বশেষ সংবাদ

মিন্নির জামিন নামঞ্জুর

রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে প্রিয়ার বিরুদ্ধে দুই মামলা

গজালিয়া সাতঘরিয়া পাড়ার গ্রামীন সড়কের বেহাল দশা : দেখার কেউ নেই

জজকোর্টের জারীকারক মনির আর নেই : রোববার জুহুরের পর জানাজা

‘ফুলটাইম’ রাজনীতি করবেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস

টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইয়াবাকারবারি নিহত

পকেটে থাকা আগ্নেয়াস্ত্রে ঢাবিতে ছাত্রলীগ নেতা গুলিবিদ্ধ

গোমাতলীর ছুরত হাজী আর নেই

মস্কোয় হাজারো মানুষের বিক্ষোভ

এবার ঈদের আগেই খালেদা জিয়ার মুক্তি!

দেশদ্রোহী হিসেবে প্রিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে

উদ্দেশ্য খুঁজতে প্রিয়া সাহার কল রেকর্ড-ট্রাভেল হিস্ট্রি যাচাই

২,৯৬০টি ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়লো রোহিঙ্গা নারী

প্রথম-লঘু অপরাধে শাস্তি নয়, ‘শিক্ষানবিশ আইন’ চূড়ান্ত

চকরিয়ায় পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ ২ পাচারকারী আটক

বদলে গেলো কক্সবাজার সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসা পদ্ধতি

‘নতুন যুগে’ প্রবেশ করলো কক্সবাজার সদর হাসপাতাল

ইসলামপুরে ৫ ট্রাক লবণ জব্দ, আমদানিকারক ও মিল মালিক সমিতি মুখোমুখি

কক্সবাজারে উন্নয়নের মহাযজ্ঞ বাস্তবায়ন করছে সরকার : সাংবাদিকদের ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

উখিয়া সংবাদকর্মীর উপর ইয়াবা ব্যবসায়ীর হামলা