নাব্যতা হারানোর কারণে নৌ-দুর্ঘটনা বাড়ছে

সিবিএন
দেশে প্রবাহমান নদীগুলোর নাব্যতা হারানোর কারণে নৌ-দুর্ঘটনার পরিমাণ বাড়ছে। দুর্ঘটনা রোধ করতে নদীর ড্রেজিং ও চালকদের প্রশিক্ষণের আওতায় আনতে হবে।
নৌ-নিরাপত্ত্বা সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে শহরের পাবলিক লাইব্রেরী মাঠেট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) এর আলোচনা সভায় বক্তারা এ অভিমত জানান।
সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী মোঃ আবদুর রহমান।
বিশেষ অতিথির বক্তৃতা রাখেন, স্পেশাল অফিসার, মেরিন সেফটি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বদরুল হাসান মিটন, সদর মডেল থানার ওসি মোঃ আসলাম হোসেন।
সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহবায়ক ও টুয়াক ফাউন্ডার কমিটির চেয়ারম্যান এম এ হাসিব বাদল।
টুয়াকের ফাউন্ডার মেম্বার ও সভার পৃষ্টপোষক তোফায়েল আহমেদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তৃতা করেন জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও টুয়াকের প্রধান সমন্বয়ক মফিজুর রহমান মফিজ, ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট এস. এম কিবরিয়া খান, জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব ছৈয়দুল হক কোম্পানী, টুয়াকের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাফ উদ দৌল্লাহ আশেক প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, ২০০৪ সালের ২৩ মে চাঁদপুরে একটি নৌ-দুর্ঘটনায় ৩০০ যাত্রী মারা যায়। সেই সময় থেকে নৌ-নিরাপত্ত্বার দাবী ওঠে। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে অন্তত ৪৭টি জেলার ৭৫ সড়কে অন্তত ২০ হাজার নৌ-যান চলাচল করে।
এসব এলাকায় কোন না কোনভাবে নৌ-দুর্ঘটনা ঘটছে। এর প্রধাণ কারণ নাব্যতা সংকট। দুর্ঘটনারোধে শীঘ্রই নদী খনন ব্যবস্থা করতে হবে।
দুর্ঘটনার কারণে হিসেবে বক্তারা বলেন, অধিকাংশই ফিটনেসবিহীন নৌ-যান, নকশার সাথে বাস্তবতার অমিল, দক্ষ নৌ-চালক অভাব এবং দুর্যোগকালীন সময় সংকেত মানা হয় না।
আলোচনা সভায় টুয়াকের প্রধান সমন্বয়ক মফিজুর রহমান মফিজ বলেন, টেকনাফ-সেন্টমার্টিনের ২৫ নটিকেল মাইল অতিক্রম করে প্রবাল দ্বীপে যাচ্ছে পর্যটকেরা। সাগর পথে অনেক ঝুঁকি রয়েছে। এ পথে গভীরতা সুচক চিহ্ন ‘বয়া’ স্থাপনের জন্য বিআইডব্লিটিএ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।
তিনি বলেন, স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষ ইউনাইটেড গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করে ব্যক্তিগত ব্যবসার জেটি নির্মাণ করায় নৌ-পথের পর্যটক ও যাত্রী হয়রানী বাড়ছে। সেন্টমার্টিনের জেটিটিও অতি ঝুঁকিপূর্ণ। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের নজর দেয়ার আহবান জানান মুফিজুর রহমান।
সভার আগে নৌ-নিরাপত্ত্বা সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান সড়ক ঘুরে পাবলিক লাইব্রেরী মাঠে পৌঁছে শেষ হয়।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

কেন শেখ হাসিনাকেই আবার ক্ষমতায় দেখতে চায় ভারত

দাঁতের ইনফেকশন থেকে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার নিযুক্ত হলেন আনছার হোসেন

তারেকের বিষয়ে ইসির কিছুই করার নেই

গণফোরামে যোগ দিলেন সাবেক ১০ সেনা কর্মকর্তা

৬০ আসনে জামায়াতের ‘দর-কষাকষি’

চকরিয়ায় মধ্যরাতে স্কুল মাঠে ঘর তৈরির চেষ্টা

চকরিয়া-পেকুয়ায় মনোনয়ন পেতে মরিয়া জাফর আলম

তারেকের ভিডিও কনফারেন্স ঠেকাতে স্কাইপি বন্ধ করল বিটিআরসি

খুটাখালী বালিকা মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগ

চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ শূন্য ঘোষনা

ইসির নির্দেশনা বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা জানেন না জেলা নির্বাচন অফিসার

প্রশাসন ও পুলিশে রদবদল করতে যাচ্ছে ইসি

আ’লীগের প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়নি: ওবায়দুল কাদের

মাদকের কারণে কক্সবাজারের বদনাম বেশি -অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম

বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে কক্সবাজারকে এগিয়ে নিতে চান আনিসুল হক চৌধুরী সোহাগ

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি’র

টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিশ্ব টয়লেট দিবস পালিত

রাঙামাটিতে যৌথ অভিযানে তিন বোট কাঠসহ আটক ৭

বিএনপি’র প্রতীক ‘ধানের ছড়া’ না ‘শীষ’?