জালালাবাদ স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্রে এমআরদের দৌরাত্ম্য

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর:

কক্সবাজার সদর উপজেলার জালালাবাদ স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্রে ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধি (এম আর) দের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগী ও তার স্বজনরা। প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে রাত পর্যন্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্রে বিভিন্ন ওয়ার্ড ও হাসপাতাল এলাকায় মোটর সাইকেল নিয়ে অবস্থান করে ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধিরা। বাসা, চেম্বার ও পরিবার কেন্দ্র থেকে ডাক্তার দেখিয়ে বেরিয়ে আসলে ডজন খানেক এম আর রোগীর সামনে এসে হাজির। রোগীর হাত থেকে কার আগে কে প্রেসক্রিপশান নিবেন সে প্রতিযোগিতায় তারা ব্যস্ত হয়ে পড়ে। কোন রকমে চলচাতুরী করে রোগীর হাত থেকে প্রেসক্রিপশান নিয়েই কোন কোম্পানীর ঔষধ লিখেছেন ডাক্তার সেটা দেখতে থাকেন একেকজন করে। এদিকে প্রেসক্রিপশান নিয়ে টানা টানি করাকালে রোগীর কষ্টের প্রতি কর্ণপাতই থাকেনা এমআরদের। হত-দরিদ্র অশিক্ষিত ও মহিলা রোগী পেলেতো কথাই তদের। এম আররা তাদের নিজের ইচ্ছে মতো প্রেসক্রিপশান দেখছে। রোববার সকালে জালালাবাদ স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্র এবং সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন ক্লিনিকসহ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে সরেজমিনে দেখা গেছে, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রবেশে রোগীদের সমস্যায় না পড়লেও বের হতে এম আরদের চাপের মুখে পড়তে হয় সকল রোগীদের। একজন রোগীর প্রেসকিপসশন দেখতে ৫-১০ জন এম আর কাড়াকাড়ি শুরু করতে থাকেন। কারন ডাক্তার মহোদয়কে এম আরের ঝালাই করে দিয়ে আসা ঔষধ খানা প্রেসক্রিপশনে দিয়েছে কিনা সেটা দেখার জন্য। এতে করে অতিষ্ট হয়ে পড়ে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা। অনেক সময় দেখা যায় ডাক্তারাও এম আরদের চাপে পড়ে দিতে হয় ঔষধ, সেই ঔষদের লিষ্টে এমনও ঔষধ থাকে যা ঈদগাঁও কিংবা কক্সবাজার গিয়েও পাওয়া যায়না। এদিকে শফিউল আলম, আবদুল করিম, মোহাম্মদ হোছন ও শাহেনা আক্তারসহ কয়েকজন রোগী জানান, সকাল সাড়ে ১০টায় গিয়ে দেখা যায় দরজায় গাদাগাদি করে একটি কোম্পানির এমআর ছবি তুলছে প্রেসক্রিপশনের, তার কাছে জানতে চাইলে সে ডাক্তার ভিজিটে গিয়েছিল বলে জানায়। এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান। মেডিকেল অফিসার ডাক্তার তৃণাসাহার সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগযোগের চেষ্টা করেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সর্বশেষ সংবাদ

শক্তিশালী হুন্ডি সিন্ডিকেট সক্রিয়

রামুতে ডাকাত সর্দার আনোয়ার ও শহিদুল্লাহ গ্রেফতার

কে.এস রেড ক্রিসেন্ট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিইসি পরীক্ষার্থীদের বিদায়

ইয়াবা ব্যবসায়ীর হাত ধরে পালিয়েছে ২ সন্তানের জননী

চকরিয়া-পেকুয়া আসনে এনডিএমের একক প্রার্থী ফয়সাল চৌধুরী

হাইকোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন কক্সবাজারের ডিসি-এসপি

চট্টগ্রামে ২ ভুঁয়া সাংবাদিক আটক

আ’লীগ ও জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম কিনেছেন সেনা কর্মকর্তা মাসুদ চৌধুরী

মনোনয়নে ছোট নেতা, বড় নেতা দেখা হবে না : শেখ হাসিনা

মহেশখালীতে অগ্নিকান্ডে ৬ দোকান ভস্মিভূত, ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতি

নয়াপল্টনে সংঘর্ষ : মামলা হবে ভিডিও ফুটেজ দেখে

নিম্ন আদালতের সাজা উচ্চ আদালতে স্থগিত না হলে প্রার্থিতা বাতিল হবে

এমপি মৌলভী ইলিয়াছকে চ্যালেঞ্জ আরেক প্রার্থী সামশুল আলমের

পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের কৃতজ্ঞতা

চট্টগ্রামের বিএনপি কার্যালয় পুলিশের কড়া পাহাড়া

মাওলানা আনোয়ারের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

বিএনপির মনোনয়নপত্র নিলেন আলমগীর ফরিদ ও শহীদুজ্জামান

বান্দরবান ৩০০নং আসনে মনোনয়ন নিয়ে বেসামাল বিএনপি

কলেরা টিকা পাবে আরো দু’লক্ষাধিক রোহিঙ্গা

নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছে সরকার: ফখরুল