চীফ রিপোর্টার, সিবিএন:
এমনও কিছু ভালোবাসার থাকে যা নাকি মানুষ কোনো দিন ভোলে না! শুধু দৃশ্যপটটা হয়ে যায় ভিন্ন। পাল্টে যায় সময় আর স্থান। হয়তো কাছের মানুষটা থাকে যোজন যোজন দূরে। তবুও ভালোবাসাটা একদম ফিকে হয় না। রয়ে জ্বলজ্বল। এমনই এক ভালোবাসা দেখালেন কক্সবাজারের বিএনপি। এমন অভাবনীয় দেখালেন দেশান্তরি ‘প্রাণপ্রিয়’ সালাহ উদ্দীনের প্রতি। এই নেতার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশে অবলম্বন করা হয়েছে এক অভিনব পন্থ। তাহলো শনিবার অনুষ্ঠিত জেলা বিএনপির ‘তৃণমুল প্রতিনিধি সভায়’ অতিথির আসনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য কক্সবাজারের সন্তান, ভারতে শিলংয়ে নির্বাসিত সালাহ উদ্দীন আহমদের জন্য একটি চেয়ার খালি রাখা হয়। দেখা গেছে, অতিথির আসনে চেয়ারটি খালি থাকায় অনেকে কৌতুহলোদীপ্ত হয়ে বিষয়টি জানতে চায়। আয়োজক কর্তৃপক্ষ মাইকে ঘোষণা দিয়ে বিষয়টি জানান। একই সাথে সালাহ উদ্দীন আহমদের প্রতি ভালোবাসার বহি:প্রকাশের কথা জানান।
সভায় অংশ নেয়া অনেকে বলেন, সালাহউদ্দীন বিএনপির ‘প্রাণভোমরা’। তাঁকে আমরা অনেক ভালোবাসি। তিনি দেশে না থাকায় তার শূন্যতা আমাদের অনেক কষ্ট দেয়। তার জন্য যে ভালোবাসা দেখানো হয়েছে তাতে আমাদের প্রাণভরে গেছে।
জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক আকতার চৌধুরী বলেন, ‘সালাহ উদ্দীন আহমদ কক্সবাজারের কৃতি সন্তান। তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের স্বপ্নের নায়ক। তাঁর প্রতি নেতাকর্মীদের কতটা ভালোবাসা রয়েছে আমার ভাষায় প্রকাশযোগ্য নয়। তাই সভায় আয়োজক কমিটির সিদ্ধান্ত নিয়ে ওনার চেয়ারটা খালি রাখা হয়েছে।’
জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী বলেন, ‘সালাহ উদ্দীন আহমেদ দেশে থাকলে হয়তো তিনিই অনুষ্ঠানে মধ্যমণি। তাকে সামনে পেলে নেতাকর্মীদের উচ্ছ্বাসের বাঁধ হতো। কিন্তু আমরা সে সৌভাগ্য থেকে বঞ্চিত। দেশের জন্য, বিএনপির জন্য তিনি আজ অসহায় অবস্থায় দেশান্তরি হয়ে আছেন। কিন্তু তাঁর প্রতি যে ভালোবাসা আমাদের একটুও কমতি হয়নি। সে ভালোবাসার জায়গা থেকেই ওনার জন্য একটা চেয়ার খালি রাখা হয়। এতে নেতাকর্মীরা অনেক খুশি হয়েছেন।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •