বিশ্বের অন্তত ৭৪ দেশে র‍্যানসমওয়্যার ভাইরাস দিয়ে সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশে কোনও কম্পিউটার আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া না গেলেও হামলার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ও বাংলাদেশ নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্রুপের (বিডিনগ) ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ার‌ম্যান সুমন আহমেদ সাবির বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘যাদের কম্পিউটারে ডাটা ভালনারেবল অবস্থায় আছে তারা যেন অতিদ্রুত সব ব্যাকআপ নিয়ে নেয়। তা না হলে কম্পিউটার লক হয়ে গেলে ডাটা উদ্ধার করা কঠিন হবে।’

এ সময় তিনি কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের আনঅথরাইজড কোনও কিছু ব্রাউজ না করার পরামর্শ দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার প্রথম যুক্তরাজ্যের হাসপাতালগুলো এই সাইবার হামলার শিকার হয়। পরে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া, স্পেনসহ অন্তত ৭৪টি দেশে এই হামলা চালানোর খবর জানায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ওয়ার্ল্ড।

এই র‍্যানসমওয়্যার ভাইরাসের আক্রমণে কম্পিউটার লক হয়ে যায় এবং মনিটরে একটি বার্তা ভেসে উঠে। এতে কম্পিউটার চালানোর জন্য অনলাইন মুদ্রা ব্যবস্থা বিটকয়েনে মুক্তিপণ পরিশোধ করার কথা উল্লেখ থাকে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া, স্পেন, ইতালি, ভিয়েতনাম, তাইওয়ানসহ শক্তিশালী অর্থনীতির বিভিন্ন দেশে এই সাইবার হামলার খবর পাওয়া গেছে। সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন দেশের কম্পিউটারের মনিটরে ভেসে ওঠা স্ক্রিনশটগুলো পরীক্ষা করে দেখছেন।

সাইবার হামলায় দ্য শ্যাডো ব্রোকার্স নামের একটি গ্রুপ জড়িত বলে ধারণা করা হয়েছে। এই গ্রুপটি সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সিকিউটি এজেন্সির (এনএসএ) হ্যাকিং টুল ফাঁস করেছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •