জনগণের করের টাকায় বেসিক ব্যাংক বাঁচানোর চেষ্টা

ডেস্ক নিউজ:

শেষ পর্যন্ত জনগণের করের টাকায় রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংককে বাঁচানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এই উদ্দেশ্যে মূলধন ঘাটতি পূরণ করতে বাজেট থেকে এই ব্যাংকটিকে শিগগিরই আরও ১ হাজার কোটি টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এই বিষয়ে অনুমোদন দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

অবশ্য চলতি অর্থবছরের বাজেটেও সরকারি ব্যাংকগুলোর মূলধন ঘাটতি মেটাতে ২ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছেন অর্থমন্ত্রী।

জানা গেছে, ২০০৯ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বেসিক ব্যাংক থেকে ৪ হাজার কোটি টাকা বেরিয়ে যায়। সরকার এরপর দুই বছরে ব্যাংকটিকে ২ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা দিয়েছে। সর্বশেষ গত বছরের মে মাসে দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা।

জনগণের করের টাকায় বেসিক ব্যাংক বাঁচানোর উদ্যোগ প্রসঙ্গে প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহ উদ্দিন আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি পূরণ করাই আসল সমাধান নয়। এই ব্যাংকগুলোয় সুশাসন জরুরি।’ তিনি বলেন, ‘বেসিক ব্যাংকে যে সমস্য হয়েছে, তা দুর্নীতির কারণে সৃষ্ট। যারা দুর্নীতি করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে এভাবে জনগণের টাকা থেকে মূলধনের জোগান দেওয়া ঠিক হচ্ছে না।’

এর আগে ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে আর্থিকভাবে দুরবস্থার কথা উল্লেখ করে ২ হাজার ৬০০ কোটি টাকার সুদমুক্ত বন্ড চেয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয় ব্যাংকটি। ১০ থেকে ২০ বছর মেয়াদি মোট ২৬টি বন্ডের মাধ্যমে এই অর্থ দেওয়ার আবেদন করা হয়। তবে সরকার বন্ড ছাড়ার অনুমতি না দিয়ে ব্যাংকটিকে বাজেট থেকেই টাকা দেওয়া সিদ্ধান্ত নেয়।

অবশ্য অর্থমন্ত্রী সম্প্রতি সচিবালয়ে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মূলধন ঘাটতি পূরণে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে আপাতত বাজেট থেকেই টাকা দেওয়া হবে। বেসিক ব্যাংক প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এই ব্যাংকের সমস্যাগুলো অন্যদের চেয়ে আলাদা। ব্যাংকটিকে পরিচর্যা করতে হবে। বেসিক ব্যাংককে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। এ জন্য কিছু করা হবে।’

জানা গেছে, রাষ্ট্রায়ত্ত বেসিক ব্যাংকের এখন মূলধন ঘাটতি রয়েছে ২ হাজার ৪২৪ কোটি টাকা। মূলধন কমে যাওয়ায় এই ব্যাংকটি পণ্য আমদানিতে সরাসরি এলসি খুলতে পারছে না।

এ প্রসঙ্গে বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলাউদ্দিন এ মজিদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বেসিক ব্যাংকে দুরবস্থার মধ্যে রেখে গেছে শেখ আব্দুল হাই বাচ্চু পর্ষদ। সেখান থেকে এই ব্যাংকটি লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছে। এখন ব্যাংকটি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে।’ তিনি উল্লেখ করেন, ‘মূলধন ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব হলে বেসিক ব্যাংক আবারও মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হবে।’

এদিকে ২০১৬ সাল শেষে বেসিক ব্যাংকের প্রভিশন (নিরাপত্তা সঞ্চিতি) ঘাটতি হয়েছে ৪ হাজার ৬৩ কোটি টাকা। তথ্য অনুযায়ী, দীর্ঘদিন ধরে লাভে থাকা এই ব্যাংকটি ২০১৩ সালে এসে প্রথমবারের মতো লোকসানে পড়ে। ওই বছর নিট লোকসান হয় ৫৩ কোটি টাকা। ২০১৪ সালে লোকসানের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ১১০ কোটি টাকা। আর ২০১৫ সালে তা ৩০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়। অবশ্য ২০১৬ সালে সামান্য লাভ করে ব্যাংকটি।

বেসিক ব্যাংকের বাইরে আরও ৫টি ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি মেটাতে আরও ৭৭১ কোটি টাকা দেওয়া হবে। এর মধ্যে সোনালী ব্যাংক পাবে ৩০০ কোটি টাকা, রূপালী ব্যাংককে ২০০ কোটি টাকা, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংককে ১৪৯ কোটি টাকা, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংককে (রাকাব) ১০০ কোটি ও গ্রামীণ ব্যাংককে দেওয়া হবে ২২ কোটি টাকা ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, সোনালী, বেসিক, কৃষিসহ পাঁচ ব্যাংকের মূলধন ঘাটতির পরিমাণ প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকা। ২০১৪ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত তিন বছরে সরকার সোনালী, বেসিক, জনতাসহ সাত ব্যাংককে নগদ ৭ হাজার ৯৭৫ কোটি টাকা দিয়েছে সরকার। এই টাকা দেওয়া হয়েছে কখনও মূলধন ঘাটতি পূরণ, কখনো মূলধন পুনর্গঠনের নামে।

জানা গেছে, সরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঘাটতিতে রয়েছে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক। ব্যাংকটির ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৮৩ কোটি টাকা। সোনালী ব্যাংকের ঘাটতি ৩ হাজার ৪৭৫ কোটি টাকা আর রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ঘাটতি এখন ৭৪৩ কোটি টাকা।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফ উপজেলা যুবদলের কমিটি গঠিত

সাপ্তাহিক মাতামুহুরী’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

টেকনাফে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে বিদেশী মদ বিয়ারসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে হত্যা ও মানব পাচার মামলার আসামী গ্রেফতার

চকরিয়ায় ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

খালেকুজ্জামান বেঁচে আছেন জনতার মাঝে

মরহুম এড. খালেকুজ্জামান স্মরণে ৫ম দিনেও বিভিন্ন মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

`রাঙামাটির রূপ দিনদিন হারিয়ে যেতে চলেছে’

বান্দরবানে শ্রেষ্ঠ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা কালাম হোসেন

বর্তমান সরকারই পাহাড়ের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে : বীর বাহাদুর এমপি

কুতুবদিয়ায় শহীদ উদ্দিন ছোটনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ফের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

লামায় ক্যাম্প প্রত্যাহার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও রাজার সনদ বাতিল দাবীতে মানববন্ধন

লবণ আমদানি হবেনা, মজুদদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা -শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু

১ লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন লবণ উদ্বৃত্ত, তবু আমদানির চক্রান্ত

ঈদগাঁও থেকে দোকানদার অপহরণঃ ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী!

‘হিংসাবিহীন মানুষ পাওয়া কঠিন’

যখন দশম শ্রেণির ছাত্রী এই সময়ের পিয়া

উখিয়ায় অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন এসিল্যান্ড একরামুল ছিদ্দিক

কক্সবাজার শহরে বেড়েই চলছে চুরি ছিনতাই

হোটেল সী-গালের সংবর্ধনায় সিক্ত মেয়র মুজিবুর রহমান