টেকনাফে আইনশৃংখলা চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ :

মাদক প্রতিরোধে আইনশৃংখলা বাহিনীর বিশেষ অভিযান স্বত্বেও ইয়াবা পাচার ও সেবন দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় টেকনাফ উপজেলা মাসিক আইনশৃংখলা কমিটির সভায় জনপ্রতিনিধিরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি বড় বড় ইয়াবা জব্দের ঘটনায় আসামী কিংবা মুল হোতারা গ্রেফতার না হওয়ায় ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা করা হয়েছে।

৩০ এপ্রিল রবিবার টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক এর সভাপতিত্বে উপজেলা আইনশৃংখলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তারা বলেন আইনশৃখলা বাহিনীর কতিপয় সদস্যদের সাথে মাদক পাচারকারী গডফাদারদের সখ্যতা রয়েছে। ফলে ইয়াবা অভিযান ও পাচার প্রতিরোধে সফলতা আসছেনা। সেন্টমার্টিনদ্বীপেও এখন মাদক এবং ইয়াবা ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কয়েকজন মহিলা সম্প্রতি বেপরোয়াভাবে মাদক পাচারে জড়িয়ে পড়েছে। এদের আইনের আওতায় আনতে শিগগিরই অভিযান জরুরী।

কমিটির সদস্যগণ মানবপাচার শূণ্যের কোঠায় নিয়ে আসায় আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রশংসা করে আরো বলেন শুধু বড় বড় ইয়াবার চালান আটক করে বাহবা নিলে হবেনা। এদের সাথে সম্পৃক্ত রাঘব বোয়ালদের খুঁজে বের করতে হবে। ইয়াবা উড়ে আসে না। নিশ্চয় কোন বাহন দিয়ে এদেশে পাচার হয়ে আসছে। ওই সব মাদক পাচারকারীদের কাছে বড় বড় ট্রলার ও ফিশিং বোট রয়েছে। ওই বাহন খুুঁজে প্রকৃত মালিককে বের করে আইনের আওতায় আনা না হলে অদুর ভবিষ্যতে ইয়াবা পাচার আরো ভয়াবহ আকার ধারন করবে। অতি সম্প্রতি মালিক বিহীন লাখ লাখ ইয়াবা আটক করা হয়েছে। অথচ কোন আসামী নেই এবং কোন পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলাও হয়নি। সভায় প্রকৃত মাদক ইয়াবা পাচারকারীদের নতুন তালিকা তৈরী করার আহবান জানান। ইয়াবা পাচারের পাশাপাশি এখন সেবনের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। এদের আস্তানা চিহ্নীত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে আইনশৃংখলা বাহিনীকে আহবান জানানো হয়।

আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব সোনা আলী বলেন টেকনাফের সাংবাদিকরা শুধু আওয়ামীলীগ নেতা ও আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রেস রিলিজ নির্ভর সংবাদ পরিবেশন করে থাকেন। অথচ বড় বড় মাদক পাচারকারী ও অবৈধ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কলম ধরেননা।

নবাগত উপজেলা নিব্র্াহী কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক বলেন মাদক ইয়াবা শুধু টেকনাফের সমস্যা নয়। এই মাদক দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। ইয়াবা প্রতিরোধে সকলকে এক যোগে কাজ করতে হবে। পাশাপাশি এই অঞ্চলে র‌্যাবের টহল জরুরী বলেও মন্তব্য করেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ সুমন বড়–য়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাওঃ রফিক উদ্দীন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা আক্তার মিলি, হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মাওঃ নুর আহমদ আনোয়ারী, সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ, সাবরাং ইউপি চেয়ার‌্যমান নুর হোসেন, টেকনাফ মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার আবুল খায়ের, বিজিবি প্রতিনিধি ইব্রাহীম, আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব সানা আলী, আবুল কালাম, ওসিসির সুব্রত সরকার প্রমূখ। এরপর মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্টিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাওঃ রফিক উদ্দীন। সভায় দপ্তরওয়ারী আলোচনা বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সভায় সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী, জনপ্রতিনিধিসহ মিডিয়াকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

কেন শেখ হাসিনাকেই আবার ক্ষমতায় দেখতে চায় ভারত

দাঁতের ইনফেকশন থেকে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার নিযুক্ত হলেন আনছার হোসেন

তারেকের বিষয়ে ইসির কিছুই করার নেই

গণফোরামে যোগ দিলেন সাবেক ১০ সেনা কর্মকর্তা

৬০ আসনে জামায়াতের ‘দর-কষাকষি’

চকরিয়ায় মধ্যরাতে স্কুল মাঠে ঘর তৈরির চেষ্টা

চকরিয়া-পেকুয়ায় মনোনয়ন পেতে মরিয়া জাফর আলম

তারেকের ভিডিও কনফারেন্স ঠেকাতে স্কাইপি বন্ধ করল বিটিআরসি

খুটাখালী বালিকা মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগ

চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ শূন্য ঘোষনা

ইসির নির্দেশনা বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা জানেন না জেলা নির্বাচন অফিসার

প্রশাসন ও পুলিশে রদবদল করতে যাচ্ছে ইসি

আ’লীগের প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়নি: ওবায়দুল কাদের

মাদকের কারণে কক্সবাজারের বদনাম বেশি -অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আদিবুল ইসলাম

বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে কক্সবাজারকে এগিয়ে নিতে চান আনিসুল হক চৌধুরী সোহাগ

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি’র

টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিশ্ব টয়লেট দিবস পালিত

রাঙামাটিতে যৌথ অভিযানে তিন বোট কাঠসহ আটক ৭

বিএনপি’র প্রতীক ‘ধানের ছড়া’ না ‘শীষ’?