শহরের পাহাড়তলীতে বসতভিটা দখল মরিয়া সন্ত্রাসীরা, হামলায় মহিলাসহ আহত ৩

বিশেষ প্রতিবেদক
কক্সবাজার শহরে পাহাড়তলী সাত্তারঘোনায় কারান্তরীণ এক ব্যক্তির বসতভিটা দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। এরই মধ্যে কয়েক দফা দখলের অপচেষ্টা চালিয়েছে। এতে বাধা দেয়ায় সশস্ত্র হামলা চালিয়ে বৃদ্ধাসহ দু’মহিলাসহ তিনজনকে গুরুতর জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। ২৮ এপ্রিল এই হামলা চালানো হয়। হামলায় আহতরা হলেন, ওই এলাকার বাসিন্দা কারান্তরীণ ছৈয়দ আলম প্রকাশ হাতকাটা ছৈয়দ আলমের স্ত্রী সনজিদা বেগম, মা মনোয়ারা বেগম ও বাবা আবদু শুক্কুর। এ ঘটনায় সনজিদা বেগম বাদি হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পাহাড়তলী সিরাজের ঘোনার সিরাজুল হকের পুত্র ফজল আহামদ, সাত্তারঘোনার বর্মাইয়া ইউসুফ, হাফেজ আহামদ, জিয়ানগরের তৈয়বা বেগম, শাকের, জাবেদ, ইসলামপুরের বর্মাইয়া শাহ আলম, মনিউজ্জামান ও সোনা মিয়াসহ একদল সন্ত্রাসী দীর্ঘ দিন ধরে কারান্তরীণ ছৈয়দ আলমের পরিবারের সাথে শত্রুতা করে আসছে। এই সন্ত্রাসীরাই যোগসাজস করে ছৈয়দ আলমের দু’হাত কেটে নিয়েছিল। তারপরও তারা ক্ষান্ত হয়নি। এক পর্যায়ে ছৈয়দ আলমকে ফাঁসাতে একটি হত্যা মামলায় তাকে আসামী করে ওই সন্ত্রাসীরা। এই মামলায় গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে কক্সবাজার কারাগারে বন্দি রয়েছে ছৈয়দ আলম।
ছৈয়দ আলমের স্ত্রী সনজিদা বেগম অভিযোগ করে জানান, ছৈয়দ আলম জেলে গেলে সন্ত্রাসীরা তাদের বসতভিটার উপর কুনজর দেয়। তারা ছৈয়দ আলমের বসভিটাটি দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে। দখল করতে এরই মধ্যে কয়েক দফা সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে। সর্বশেষ ২৮ এপ্রিল সন্ত্রাসীরা এক দুর্ধর্ষ হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে তারা ছৈয়দ আলমের বসতবাড়ি ভেঙে দিয়েছে। এসময় হামলা বাধা দেয়ায় ছৈয়দ আলমের স্ত্রী সনজিদা, মা ও বাবাকে বেদড়ক মারধর করে। এতে তারা গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হয়।
ভুক্তভোগী সনজিদা কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘এলাকার সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় আমার স্বামী ছৈয়দ আলমের দু’হাত কেটে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এরপরও তাদের জুলুম থেকে আমাদের রক্ষা হচ্ছে না। এখন আমার স্বামী না থাকায় সন্ত্রাসী আমাদের বসতভিটা দখলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। বর্তমানে আমরা চরম অসহায় হয়ে দিন যাপন করছি। আমি এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

উখিয়ার একজন অনন্য কারুকাজ শিল্পী প্রমোতোষ বড়ুয়া

বিশ্বে অাজ মুসলিমরা এত বেশি নির্যাতিত কেন?

শীর্ষ সন্ত্রাসী আনোয়ার বলি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মহেশখালীতে আদিনাথ ও সোনাদিয়া পরিদর্শন করলেন মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার

পেকুয়া জীম সেন্টারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

২৩ সেপ্টেম্বর ওবাইদুল কাদেরের আগমন উপলক্ষে পেকুয়ায় প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন

পেকুয়ায় ৬দিন ধরে খোঁজ নেই রিমা আকতারের

রে‌ডি‌য়েন্ট ফিস ওয়ার্ল্ডের মাধ্য‌মে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নতুন প্রজ‌ন্মের কা‌ছে পৌঁছা‌বে -মোস্তফা জব্বার

অনূর্ধ ১৭ ফুটবলে সহোদরের ২ গোলে মহেশখালী চ্যাম্পিয়ন

টাস্কফোর্সের অভিযানঃ ৪৫০০ ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফে ৭৫৫০টি ইয়াবাসহ দুইজন আটক

এলোমেলো রাজনীতির খোলামেলা আলোচনা

কক্সবাজারে হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ ফিরে পেলেন পর্যটক

সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতীয় ঐক্য

সঠিক কথা বলায় বিচারপতি সিনহাকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছে সরকার : সুপ্রিম কোর্ট বার

সিনেমায় নাম লেখালেন কোহলি

যুক্তরাষ্ট্রের কথা শুনছে না মিয়ানমার

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহতের সংখ্যা শতাধিক

যশোরের বেনাপোল ঘিবা সীমান্তে পিস্তল,গুলি, ম্যাগাজিন ও গাঁজাসহ আটক-১

তরুণদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়াটা অনেক বেশি জরুরি- কক্সবাজারে মোস্তফা জব্বার