চকরিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগে দুই মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

মিজবাউল হক, চকরিয়া:

চকরিয়ায় চিংড়িজোনের জায়গা সংক্রান্ত বিষয়ে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে দুই মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ স্পেশাল আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার রামপুর সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির সভাপতি আবু জাফর বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার আদালতে এ মামলাটি করেন। এতে বিবাদি করা হয়েছে চকরিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.সাইফুর রহমান ও জেলা মৎস্য কর্মকর্তা অমিতোষ সেনকে।

মামলার শুনানী শেষে গত ২০ এপ্রিল আদালতের বিচারক বাদির অভিযোগটি আমলে নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনের (অনুসন্ধান ও তদন্ত) পরিচালককে নির্দেশ দিয়েছেন।

রামপুর সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম লিটন বলেন, চকরিয়া উপজেলার রামপুর মৌজার চিংড়িজোনের সাত হাজার একর জায়গার মধ্যে ৫ হাজার ১৮ একর জায়গা তাদের পুর্ব পুরুষের সম্পত্তি। উক্ত সম্পত্তির মালিকানা ফিরে পেতে ২০১২ সালে সমিতির পক্ষে হাইর্কোটে একটি রিট মামলা (নং ১০৯৬২) দায়ের করেন সমিতির তৎকালীন সভাপতি সামসুল ইসলাম চৌধুরী। মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষে চলতি ২০১৭ সালের ১২ জানুয়ারী উচ্চ আদালতের বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি আশীষ রঞ্জন দাশ সমন্বয়ে একটি দ্বৈত বেঞ্চ সমিতির দাবিকৃত ওই জায়গার মালিকানা ফেরত পেতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ভুমি মন্ত্রানালয়কে নির্দেশ দেন। পরে মন্ত্রানালয়ের পক্ষ থেকে বিষয়টি সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসককে বলা হয়।

সমিতির বর্তমান সভাপতি আবু জাফর অভিযোগ করে বলেন, উচ্চ আদালতের নির্দেশে ভুমি মন্ত্রানালয়ের আদেশ মতে রামপুর সমিতির সভ্যাদের পুর্ব পুরুষের সম্পত্তি ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহনের অজুহাত দেখিয়ে চকরিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.সাইফুর রহমান ও কক্সবাজার জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (সদ্য অবসর) অমিতোষ সেন তাদের (রামপুর সমিতি) কাছ থেকে কয়েকদফায় মোটা অঙ্কের টাকা গ্রহন করেন। কিন্তু পরক্ষনে তাঁরা (দুই মৎস্য কর্মকর্তা) স্থানীয় প্রভাবশালী চিংড়িজমি দখলবাজ চক্রের সাথে আতাঁত করে কৌশলে অনিয়মের আশ্রয় নেন। উল্টো তাঁরা (অভিযুক্তরা) রামপুর সমিতির সভ্যদেরকে তাদের পুর্ব পুরুষের জায়গা ফেরত পেতে অসহযোগিতা করতে শুরু করেন।

সমিতির সভাপতি আবু জাফর বলেন, টাকা গ্রহনের পরও আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে অভিযুক্ত দুই মৎস্য কর্মকর্তা দ্বৈতনীতি ভুমিকা পালন করায় বাধ্য হয়ে তিনি আদালতে তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন। চকরিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগে দুই মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

মিজবাউল হক, চকরিয়া:

চকরিয়ায় চিংড়িজোনের জায়গা সংক্রান্ত বিষয়ে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে দুই মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ স্পেশাল আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার রামপুর সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির সভাপতি আবু জাফর বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার আদালতে এ মামলাটি করেন। এতে বিবাদি করা হয়েছে চকরিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.সাইফুর রহমান ও জেলা মৎস্য কর্মকর্তা অমিতোষ সেনকে।

মামলার শুনানী শেষে গত ২০ এপ্রিল আদালতের বিচারক বাদির অভিযোগটি আমলে নিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনের (অনুসন্ধান ও তদন্ত) পরিচালককে নির্দেশ দিয়েছেন।

রামপুর সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম লিটন বলেন, চকরিয়া উপজেলার রামপুর মৌজার চিংড়িজোনের সাত হাজার একর জায়গার মধ্যে ৫ হাজার ১৮ একর জায়গা তাদের পুর্ব পুরুষের সম্পত্তি। উক্ত সম্পত্তির মালিকানা ফিরে পেতে ২০১২ সালে সমিতির পক্ষে হাইর্কোটে একটি রিট মামলা (নং ১০৯৬২) দায়ের করেন সমিতির তৎকালীন সভাপতি সামসুল ইসলাম চৌধুরী। মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষে চলতি ২০১৭ সালের ১২ জানুয়ারী উচ্চ আদালতের বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি আশীষ রঞ্জন দাশ সমন্বয়ে একটি দ্বৈত বেঞ্চ সমিতির দাবিকৃত ওই জায়গার মালিকানা ফেরত পেতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ভুমি মন্ত্রানালয়কে নির্দেশ দেন। পরে মন্ত্রানালয়ের পক্ষ থেকে বিষয়টি সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসককে বলা হয়।

সমিতির বর্তমান সভাপতি আবু জাফর অভিযোগ করে বলেন, উচ্চ আদালতের নির্দেশে ভুমি মন্ত্রানালয়ের আদেশ মতে রামপুর সমিতির সভ্যাদের পুর্ব পুরুষের সম্পত্তি ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহনের অজুহাত দেখিয়ে চকরিয়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.সাইফুর রহমান ও কক্সবাজার জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (সদ্য অবসর) অমিতোষ সেন তাদের (রামপুর সমিতি) কাছ থেকে কয়েকদফায় মোটা অঙ্কের টাকা গ্রহন করেন। কিন্তু পরক্ষনে তাঁরা (দুই মৎস্য কর্মকর্তা) স্থানীয় প্রভাবশালী চিংড়িজমি দখলবাজ চক্রের সাথে আতাঁত করে কৌশলে অনিয়মের আশ্রয় নেন। উল্টো তাঁরা (অভিযুক্তরা) রামপুর সমিতির সভ্যদেরকে তাদের পুর্ব পুরুষের জায়গা ফেরত পেতে অসহযোগিতা করতে শুরু করেন।

সমিতির সভাপতি আবু জাফর বলেন, টাকা গ্রহনের পরও আদালতের নির্দেশনা অমান্য করে অভিযুক্ত দুই মৎস্য কর্মকর্তা দ্বৈতনীতি ভুমিকা পালন করায় বাধ্য হয়ে তিনি আদালতে তাদের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন।

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনে জুয়েল আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন

আইনজীবীর সমিতির নির্বাচনে সভাপতি-সম্পাদক আ’লীগের : সংখ্যাগরিষ্ঠতায় বিএনপি

বাইশারী-করলিয়ামুরা সড়কে মৃত্যু ফাঁদ 

স্থানীয়দের ন্যায্য দাবি বাস্তবায়ন চাই

চীনের সেরা উদ্ভাবক নির্বাচিত ইবির শিক্ষক তারেক

পাক-ভারত পারমাণবিক যুদ্ধের সম্ভাবনা কতটুকু?

মানবাধিকার ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার বিষয়ে ডিপিও সদস্যদের প্রশিক্ষণ

উখিয়া থেকে পায়ে হেঁটে ধুতাঙ্গ সাধক শরণংকর’র গয়া যাত্রা!

মহেশখালীর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখাই আমার প্রধান লক্ষ্য- এমপি আশেক

মাদক ও মানব পাচার রোধে সহযোগিতা চাই- টেকনাফ বিজিবি অধিনায়ক

সাবেক মন্ত্রীকে বিয়ে করছেন সানাই

ভারতে বিমান ঘাঁটিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ৩০০ গাড়ি পুড়ে ছাই

লংবীচ হোটেলে `Indian Cultural Night & Food Festival’

গ্রামকে শহরে রূপান্তরে ইউনিয়ন পরিষদের ভূমিকা অপরিসীম

ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ছোটন রাজার তাক লাগানো শো-ডাউন

হোপ ফাউন্ডেশন এবার বান্দরবানে, চিকিৎসা পেলো ২৪১ রোগী

উপচেপড়া পর্যটকে মুখরিত রাঙামাটি ॥ ৩ দিনে আয় ২ কোটি টাকা

চট্টগ্রামে ১৩ হাজার কোটি টাকার ২ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

সন্তানদের হাতে স্মার্টফোন নয় বই তুলে দিন : তথ্যমন্ত্রী

গ্রামকে শহর করতে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই