আনোয়ার হোছাইন ঈদগাঁও:

কক্সবাজারের ভূয়া বিশেজ্ঞ ডাক্তার মাগুরায় আটক হয়েছে । এসময় অভিযান পরিচালনাকারী ভ্রাম্যমান আদালত তাকে এক বছরের সাজা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে । গত বুধবার বিকালে মাগুরা সদর হাসপাতাল পাড়ার এক ক্লিনিকে এ অভিযান পরিচালিত হয় । প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, দীর্ঘ দিন ধরে মাগুরা শহরের গ্রামীণ ল্যাব নামের একটি কিøনিকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এবং ঢাকা মেডিকেলের শিক্ষক পরিচয়ে ৫শ টাকার ভিজিটে রোগি দেখে লাখো টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলেন খোরশেদ আলম নামের এক ভূয়া চিকিৎসক । বিভিন্ন সুত্র থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই দিন জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের ম্যাজিস্ট্রেট দীপক কুমার শর্মা দেবের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে এক বছরের সাজা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে । তখন এ ভূয়া ডাক্তার নিজেকে খোরশেদ আলম,পিতা আবদুর রহিম, চট্রগ্রামের পাচলাইশ থানার বাসিন্দা বলে পরিচয় দেয়। প্রকৃত পক্ষে তার বাড়ি কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার চাকমারকুল ইউনিয়নের মুহাম্মদপুরায় । ইতিপুর্বে মাগুরা জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মুন্সি ছাদ উল্লাহ ভূয়া চিকিৎসকের সংবাদ বিভিন্ন মাধ্যম থেকে পেয়ে যাচাই করে নিশ্চিত হয় তথ্য সঠিক । পরে বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করলে অভিযান পরিচালিত হয় । উল্লেখ্য, বিগত কয়েক বছর পূর্বেও অষ্টম শ্রেণী পড়–য়া ভূয়া ডাক্তার প্রতারক খোরশেদ কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও বাজারের এক ফার্মেসী এবং পরে কুমিল্লা থেকে আটক হয়ে জেল খাটে । তার গ্রেফতারের সংবাদ বিভিন্ন মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক জেলা ও তার পৈত্রিক এলাকায় তোলপাড়[ হয় ।
সচেতন মহল ও এলাকার লোকজর জানান,বার বার আটক হওয়ার পরও স্থান পরিবর্তন করে এ প্রতারক মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি অব্যাহত রেখেছে । তারা ভূয়া এ চিকিৎসকের আরো কঠিন শাস্তির দাবি জানান ।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •