ক্যামেরা রেখে আহত শিশুদের বাঁচালেন সাংবাদিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

একটি ছবি হাজার লক্ষ শব্দের সমান। কয়েক হাজার শব্দ ব্যবহার করে যা বোঝানো সম্ভব নয় তা খুব সহজেই একটি ছবির মাধ্যমে প্রকাশ করা সম্ভব।

সিরিয়া যুদ্ধের নির্মমতার একটি ছবি সারা বিশ্বের লাখ লাখ মানুষের হৃদয়কে নাড়িয়ে দিয়েছে। ২০১৫ সালে সমুদ্র তীরে আয়লান কুর্দি নামে এক শরণার্থী শিশুর উপুড় হয়ে পড়ে থাকা মরদেহের ছবি ওই সময় সারা বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল।

গত সপ্তাহে সিরিয়ার অবরুদ্ধ গ্রাম থেকে অবরুদ্ধদের সরিয়ে নেয়ার সময় একটি বাসে বোমা হামলায় ১২৬ জনের প্রাণহানি ঘটে। ওই সময় ফটোসাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী আবদে আলকাদের হাবাক সেখানে পৌঁছে হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে যান।

Habak

হাবাক সিএনএনকে ওই ঘটনার বর্ণনা করতে গিয়ে জানান, অত্যন্ত ভয়ঙ্কর দৃশ্য ছিল সেটি। আমার পাশেই শিশুরা হাহাকার করছে, মারা যাচ্ছে। তাই সহকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা আমাদের ক্যামেরা একপাশে সরিয়ে রেখে আহতদের উদ্ধার শুরু করব। হয়তো ওই হামলার কিছু ছবি তুলতে পারলে হাবাক বেশ জনপ্রিয় হতেন কিন্তু তখন ছবি তোলার চেয়ে আহত শিশুদের উদ্ধার করাটাই তার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছিল।

হাবাক বলেন, ‘ঘটনাস্থলে একটি শিশুটিকে উল্টে দেখি সে মারা গেছে। এরপর আরেকজনের কাছে ছুটে যাই। দূর থেকে কেউ একজন চিৎকার করে বলছিল ওই শিশুটিও মারা গেছে। কিন্তু ছেলেটি তখনো বেঁচে ছিল।’ এরপর হাবাক তাকে নিরাপদ স্থানে নেয়ার জন্য ছুটতে থাকেন। আর ওই বিশৃঙ্খলার মধ্যেও তার ক্যামেরা অন ছিল। সেই সঙ্গে পুরো ঘটনা রেকর্ডিং হচ্ছিল।

Habak

শিশুটি শক্ত করে হাবাকের হাতটা ধরে মুখের দিকে বাকরুদ্ধ হয়ে তাকিয়ে ছিল। শিশুটিকে কোলে নিয়ে ক্যামেরাসহ অ্যাম্বুলেন্সের দিকে ছুটে যান তিনি। সেই ছবি তুলেছিলেন আরেক ফটোসাংবাদিক মুহাম্মদ আল-রাগেব।

আল-রাগেব জানান, প্রথমে সে (হাবাক) শিশুদের সাহায্য করেছে, তারপর ছবি তুলেছে। আমি সেই দৃশ্যগুলো ক্যামেরায় ধারণ করতে চেয়েছিলাম। হাবাকের মতো তরুণ সাংবাদিকের এরকম মানবিকতা দেখে আমি গর্বিত।

সর্বশেষ সংবাদ

নিরিবিলি তেলাফপিয়া হ্যাচারী পরিদর্শন করলেন যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটর

ঈদগড় ইউপি চেয়ারম্যান ভুট্টুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা

রাঙামাটির চন্দ্রঘোনায় বালিভর্তিট্রাকের চাপায় নিহত ২

যারা প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে চায় তাদের বিরুদ্বে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে- মেয়র মুজিবুর রহমান

আলোকিত মানুষ হতে হলে পড়াশুনার কোন বিকল্প নেই- কউক চেয়ারম্যান

মাতারবাড়িতে ডাম্পার খাদে পড়ে দুই শ্রমিক নিহত

শিক্ষার্থীদের ফাঁসাতে বাসে আগুন দেয় হেলপার নিজেই!

প্রথম আলো বিতর্ক উৎসবের ঈদগাঁও পর্ব বৃহস্পতিবার

ভারুয়াখালীতে কাইয়ুম উদ্দিনের চশমা মার্কার গণসংযোগ

পুলিশের মালখানায় চুরি: নতুন তালা দিয়ে গেলো ‘সচেতন’ চোর

নির্বাচন করছেনা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তারেক বিন মোক্তার

রাঙামাটিতে ব্রাশফায়ারের ঘটনায় ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি

সশস্ত্র হামলার ঘটনায় আবারো উত্তপ্ত রাঙামাটি

রোহিঙ্গাদের হাতে স্মার্ট ফোন, নিরাপত্তা ঝুঁকি বাড়ছে

৩৬০ টাকার জন্য দেওয়া হয়নি এইচএসসি পরীক্ষা, আজ দেশ সেরা শিল্পপতি!

রাতের অন্ধকারে বদলে যায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প

চমেক হাসপাতালে দর্শনার্থী প্রবেশে আবারো পাস চালু

নির্বাচনে অনিয়মের প্রতিশোধ মানুষের জীবন নিয়ে হয় না: চট্টগ্রামে সিইসি

সকল মুসলমান আমার ভাই, কষ্ট ভাগ করে নিতে নিউজিল্যান্ড সফর করবো: এরদোগান

নিউজিল্যান্ডের পর এবার অস্ট্রেলিয়ায় ভ্রমণ সতর্কতা জারি