মুফতি হান্নানের সঙ্গে দেখা করলেন স্বজনরা

ডেস্ক নিউজ:
মুফতি হান্নাননিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি আবদুল হান্নানের সঙ্গে তার স্বজনরা দেখা করেছেন। বুধবার (১২ এপ্রিল) সকালে কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পরিবারের চার সদস্য তার সঙ্গে দেখা করেন। বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান।
তিনি বলেন, ‘বুধবার সকাল ৭টার দিকে মুফতি হান্নানের দুই মেয়ে, স্ত্রী ও বড় ভাই কারাগারে পৌঁছান। কারা কর্তৃপক্ষের ডাকে সাক্ষাতের উদ্দেশে এর আগে তারা কারাগারের আশপাশের এলাকায় অবস্থান নিয়েছিলেন। প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে সকাল পৌনে ৮টার দিকে তাদেরকে সাক্ষাতের জন্য ভেতের পাঠানো হয়। সকাল সোয়া ৮টা থেকে আনুমানিক ৯টা পর্যন্ত তারা কথা বলেছেন।’

সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান আরও বলেন, ‘মুফতি হান্নানের সহযোগী শরীফ শাহেদুল বিপুলের পরিবারের কেউ সাক্ষাতের জন্য আসেননি।’
কারাগার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ৭টার দিকে মুফতি হান্নানের সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে আসেন তার ভাই আলিমুজ্জামান মুন্সী, স্ত্রী জাকিয়া পারভীন রুমা ও দুই মেয়ে।
এর আগে, মুফতি হান্নানের সঙ্গে দেখা করার বিষয়ে কাশিমপুর কারাগার থেকে পাঠানো চিঠি তার গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া থানায় পৌঁছায় মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে। খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতেই কোটালিপাড়া থেকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারের উদ্দেশ্যে রওনা দেন মুফতি হান্নানের পরিবারের সদস্যরা।
তবে মুফতি হান্নানের মা রাবেয়া বেগম তার ছেলের সঙ্গে দেখা করতে আসবেন না, এটা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন। এর আগে বাংলা ট্রিবিউনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘মুফতি হান্নান সরকারের কাছে অপরাধী হলেও আমার কাছে নয়। সে কি ধরনের কাজ করেছে তা জানি না। তবে আমার সামনে কখনও খারাপ কাজ করেনি।’ তিনি আরও বলেন, ‘সরকার তাকে শাস্তি দিলেও তাতে তার আপত্তি নেই। কিন্তু আমাদের নিরপরাধ মানুষগুলোকে যেন হয়রানি করা না হয়।’
কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মিজানুর রহমান মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, নিয়ম অনুযায়ী মঙ্গলবার সকালেই মুফতি আবদুল হান্নান ও তার সহযোগী শরীফ শাহেদুল আলম বিপুলের সঙ্গে স্বজনদের দেখা করতে বলা হয়। তবে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত তাদের সঙ্গে কেউ দেখা করতে যাননি। মুফতি হান্নানের স্বজনরা বুধবার সকালে দেখা করতে যাবেন বলে জানা গিয়েছিল পুলিশ সূত্রে। এ প্রসঙ্গে জেল সুপার বলেছিলেন, ‘এ সংক্রান্ত কোনও তথ্য আমার কাছে নেই। তবে স্বজনরা এলে তাদের সঙ্গে দেখা করানো হবে।’
উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ২১ মে সিলেটে হযরত শাহজালাল (রহ.)-এর মাজারে গ্রেনেড হামলায় আনোয়ার চৌধুরীসহ আরও অনেকে আহত হন। নিহত হন পুলিশের দুই কর্মকর্তাসহ তিনজন। পরে পুলিশ বাদী হয়ে সিলেট কোতোয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। ২০০৭ সালের ৩১ জুলাই হরকাতুল জিহাদ আল ইসলামী বাংলাদেশের (হুজি-বি) নেতা মুফতি আবদুল হান্নানসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সম্পূরক চার্জশিটে আরেক জঙ্গি মঈন উদ্দিন ওরফে আবু জান্দালের নাম অন্তর্র্ভুক্ত করা হয়।
২০০৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর বিচারিক আদালত মুফতি হান্নান, শরীফ শাহেদুল আলম ওরফে বিপুল ও দেলোয়ার হোসেন ওরফে রিপনকে মৃত্যুদণ্ড এবং মহিবুল্লাহ ওরফে মফিজুর রহমান ওরফে মফিজ ও মুফতি মঈনউদ্দিন ওরফে আবু জান্দালকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। এরপর উচ্চ আদালতে তারা আপিল করলে গত বছরের ৭ ডিসেম্বর নিম্ন আদালতের রায় বহাল রাখেন হাইকোর্ট। এরপর তারা রিভিউ আবেদন করলে সেটাও গত ২২ মার্চ খারিজ করে দেন আপিল বিভাগ।

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-৮

কুতুবদিয়ায় ইউএনও‘র হস্তক্ষেপে হারানো জমি ফিরে পেল দিনমজুর বাহাদুর

মহেশখালীতে পুকুরে ডুবে দুই স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু

ফাঁসিয়াখালী উপ-নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রচারনায় বাঁধা ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ

শিশুদের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ চাই : খেলাঘরের মানববন্ধন সমাবেশে বক্তারা

সৌদিতে আরও ৫০০ সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ছেলেধরা সন্দেহে রোহিঙ্গা নারীকে গণপিটুনি

ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত সনজিত দাশ এখন মোঃ ইব্রাহিম

প্রেমের টানে লক্ষ্মীপুরে আমেরিকান নারী

ফের আদালতে মিন্নি

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী আটক

দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা চাইলেন রামু থানার নবাগত ওসি খায়ের

পেকুয়ায় গ্রাম আদালতে মহিলাকে পিটিয়ে জখম

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা’র অভিযোগ! (ভিডিও)

মায়ের সহায়তায় মাদ্রাসা পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণ করতো পিতা!

নাইক্ষ্যংছড়িতে চোলাই মদসহ ১ জন আটক

জরিমানায় ফিরতে পারবেন মালয়েশিয়ায় অবৈধ বাংলাদেশিরা

এইচএসসিতে কক্সবাজারের ২৪ কলেজের কার কী অবস্থান!

সরল বিশ্বাস বলতে কী বুঝাতে চেয়েছেন দুদক চেয়ারম্যান?: কাদের

মানুষের ভালোবাসার ঋণ শোধের জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে কাজ করছি