মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

বদলী হওয়া ও পদোন্নতি পাওয়া কক্সবাজার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর ৬ বিচারককে বিদায় সমবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। বুধবার ১ ডিসেম্বর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসের এজলাস কক্ষে তাঁদের এ সমবর্ধনা প্রদান করা হয়।

বিদায় সমবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আলমগীর মুহাম্মদ ফারুকী বিদায়ী সকল বিচারকের উত্তরোত্তর উন্নতি ও আরো সাফল্য কামনা করেন। বিদায়ী বিচারকবৃন্দ নতুন কর্মস্থলে তাঁদের যোগ্যতা, পেশাদারীত্ব ও দূরদর্শিতার সাথে নিজ নিজ দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে বিচার বিভাগের মর্যাদা এবং বিচারকদের প্রতি বিচারপ্রার্থীদের আস্থা আরো বৃদ্ধি করবেন চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আলমগীর মুহাম্মদ ফারুকী দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিদায় অনুষ্ঠানে বিদায়ী ৬ জন বিজ্ঞ বিচারক যথাক্রমে মোঃ দেলোয়ার হোসেন শামীম, তামান্না ফারাহ, মোহাং হেলাল উদ্দিন, জেরিন সুলতানা, মোহাম্মদ রেজাউল হক, মুহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন বক্তব্য রাখেন। স্টেনো টাইপিস্ট এহসান উল্লাহ’র কোরআন তেলওয়াত এর মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব কুমার বিশ্বাস বক্তব্য রাখেন। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশেক ইলাহী শাহজাহান নুরী’র সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ও বেঞ্চ সহকারী লুৎফুর রহমানের সঞ্চালনায় বিদায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বেঞ্চ সহকারী ফরিদুল আলম, স্টেনো টাইপিস্ট পলাশ কান্তি দাশ, ওসমান গণি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। স্টেনোগ্রাফার নেছারুল হক এর সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠানে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর সর্বস্থরের স্টাফবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বিদায়ী বিচারকবৃন্দকে ফুল ও উপহার সামগ্রী সমবর্ধনা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে এসময় এক আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজার জেলা জজশীপ ও চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর একযোগে ৮ বিচারককে গত ২৫ নভেম্বর বদলী করা হয়। তারমধ্য, ২ জন বিচারককে পদোন্নতি দিয়ে নতুন কর্মস্থলে পদায়ন করা হয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন বিচারালয় থেকে ৮ জন বিচারককে কক্সবাজার জেলা জজশীপ ও চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর বদলীকৃত শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আইন ও বিচার বিভাগের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসাবে ৩ টি পৃথক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের এসব পদোন্নতি, নিয়োগ ও বদলী করা হয়েছে।

কক্সবাজার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ দোলয়ার হোসেন শামীম’কে যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ হিসাবে পদোন্নতি দিয়ে নোয়াখালী জেলা জজশীপের যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কক্সবাজার জেলা জজশীপের সিনিয়র সহকারী জজ আলাউল আকবর’কে যগ্ম জেলা ও দায়রা জজ হিসাবে পদোন্নতি দিয়ে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। উভয় বিচারক বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনের (বিজেএসসি) চতূর্থ ব্যাচের সদস্য।

কক্সবাজার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ-কে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে বদলী করা হয়েছে। বিচারক তামান্না ফারাহ যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ পদে পদোন্নতি পাওয়া বিচারক আলাউল আকবর এর সহধর্মিণী।

কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাং হেলাল উদ্দিন-কে সুনামগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জেরিন সুলতানা-কে নোয়াখালীর সিনিয়র সহকারী জজ হিসাবে বদলী করা হয়েছে। বিচারক জেরিন সুলতানা যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ পদে পদোন্নতি পাওয়া বিচারক মোঃ দেলোয়ার হোসেন শামীম এর সহধর্মিণী।

মহেশখালী চৌকি আদালতের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন-কে সিলেটের সহকারী জজ হিসাবে, কুতুবদিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজাউল হক-কে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র সহকারী জজ এবং টেকনাফের সহকারী জজ মোহাম্মদ জিয়াউল হক-কে মৌলভীবাজারের বড়লেখার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পদে পদায়ন করা হয়েছে। বদলী হওয়া ও পদোন্নতি পাওয়া বিচারকবৃন্দ কক্সবাজারে তাঁদের নিজ নিজ কর্মস্থল থেকে বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর রিলিজ হয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে।

এদিকে, রাঙ্গুনিয়ার সহকারী জজ শ্রীজ্ঞান তঞ্চজ্ঞা-কে কক্সবাজারের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, বান্দরবান জেলার লিগ্যাল এইড অফিসার মোহাম্মদ আবুল মনসুর সিদ্দিকী’কে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিচারক মোহাম্মদ আবুল মনসুর সিদ্দিকী আগে কক্সবাজারের সহকারী জজ হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

রাঙ্গামাটির জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আসাদ উদ্দিন মোঃ আসিফ-কে কক্সবাজারের সহকারী জজ হিসাবে, কুমিল্লার সহকারী জজ হামিমুন তানজিন-কে কক্সবাজারের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে, নোয়াখালীর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাঈদীন নাঁহী-কে কক্সবাজারের কুতুবদিয়া চৌকি আদালতের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে, নাটোরের সহকারী জজ আখতার জাবেদ-কে কক্সবাজারের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, লালমনিরহাটের সহকারী জজ মোহাম্মদ এহসানুল ইসলাম-কে কক্সবাজারের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, বগুড়ার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ওমর ফারুক-কে কক্সবাজারের সহকারী জজ এবং আইন ও বিচার বিভাগের সংযুক্ত কর্মকর্তা সুশান্ত প্রাসাদ চাকমা-কে কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিচারক সুশান্ত প্রাসাদ চাকমা এর আগে কক্সবাজারের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে ২ দফায় দায়িত্ব পালন করেছেন।