সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজার জেলা কালেক্টরেট ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারি সমিতির উদ্যোগে পদোন্নতি ও অবসর প্রাপ্ত সদস্যদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয়ে সভাপতি সুলতান মোহাম্মদ বাবুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবুল হাসেমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সরকারি ৩য় শ্রেণী কর্মচারি সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি এহসানুল করিম ।

এতে বক্তব্য রাখেন জেলা কালেক্টরেট ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারি সমিতির সিনিয়র সহ—সভাপতি জুলফিকার আলী ভুট্টু, সাবেক সভাপতি মোঃ রশিদ আহমদ, জেলা প্রশাসনের চালক সমিতির সভাপতি জানে আলম স্বপন, সংগঠনের উপদেষ্টা ছৈয়দ করিম ও সাবেক সহ—সভাপতি আবুল ফজল।

পদোন্নতি পাওয়া এবং বিদায়ীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সাবেক কোষাধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম, আবু তালেব ও জসিম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, যে দেশে গুণীর কদর করা হয় না, সেখানে গুণী মানুষের জন্ম হয় না। জন্ম হলেও মৃত্যু ঘটে। তাই গুণীদের কদর করা উচিত। দীর্ঘ কর্মজীবনে তাঁরা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারি হিসেবে সাধারণ মানুষকে নিরলস সেবা দিয়েছে। তাঁদের আলোকিত কর্মজীবনের কারণে সবাই তাদের শ্রদ্ধা ও ভালবাসার সাথে মনে রাখবে। পাশাপাশি কর্মরত কর্মকতা—কর্মচারিদেরও অনুপ্রেরণা যোগাবে। এছাড়া সমিতির কল্যাণ ফান্ডের দশগুণ টাকা দিয়ে অনন্য নজির স্থাপন করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কালেক্টরেট ৩য় শ্রেণী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম, ভূমি অফিসার্স কল্যাণ সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাহেদ ও জেলা কালেক্টরেট ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারি সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মমতাজ আহমদ।

অনুষ্ঠানে পদোন্নতি ও অবসর প্রাপ্ত সদস্যদের জেলা কালেক্টরেট ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারি সমিতির কল্যাণ ফান্ড থেকে তাদের জমাকৃত টাকার চেয়ে দশগুণ অর্থ বিতরণ করা হয়।

পদোন্নতি ও অবসর প্রাপ্ত সদস্যরা হলেন, জেলা প্রশাসনের জারীকারক দিল মোহাম্মদ, অফিস সহায়ক আবু তালেব, অফিস সহকারী মোঃ জসিম উদ্দিন, জারীকারক নুরুল ইসলাম, মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসের পরিচ্ছন্ন কর্মী টুন্টু বালা ও রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসের দপ্তরী হুমায়রা আক্তার। পরে তাঁদের মাঝে ক্রেস্ট ও চেক বিতরণ করা হয়।