আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:
রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের দূর্গমাঞ্চলে সুন্দর মনমুগ্ধকর ঝর্ণা থেকে শুরু করে আকর্ষণীয় অনেক স্পট রয়েছে যেগুলোতে এখনো পর্যন্ত পর্যটকরা যাওয়ার সুযোগ হয়নি। এসব স্পটগুলোকে পর্যটকদের জন্য পর্যটন স্পট হিসেবে তৈরি করতে হলে কমিউনিটি ট্যুরিজমকে প্রাধান্য দিতে হবে।

গতকাল রাতে ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ(টোয়াব) এর আয়োজনে রাঙামাটি পলওয়েল পার্কে অনুষ্ঠিত পর্যটন বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, রাঙামাটির পাহাড়ি এলাকাগুলোতে কমিউনিটি ট্যুরিজমকে ডেভেলপ করা গেলে সেসকল স্পটগুলো সকলের সামনে চলে আসবে এবং দেশ ও দেশের বাইরের পর্যটকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলবে। অত্রাঞ্চলের পর্যটন শিল্প বিকাশে বৈপ্লবিক পরির্তনও আসবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, কাপ্তাই হ্রদ জেলার গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ। হ্রদটি সিঙ্গাপুর চেয়েও বড়। হ্রদটিকে ঘিরে পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটাতে সময়পযোগী সিন্ধান্ত নিতে হবে। কারণ পুরো জেলাটি প্রাকৃতির সৌন্দর্যের লীলাভূমি। পরিকল্পনা নিয়ে সাজাতে পারলে পর্যটকরা বিদেশ ভ্রমণ না করে এ অঞ্চলে ভ্রমণ করবে। এখানকার মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি সুদৃঢ় হবে। এইজন্য সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

পর্যটনের সাথে জড়িতদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জেলা প্রশাসক বলেন, পারস্পরিক সচেনতার মাধ্যমে পাহাড়ের প্রাকৃতিক পরিবেশকে মাথায় রেখেই ইকো ট্যুরিজমকে এগিয়ে নিতে হবে। তিনি বলেন, রাঙামাটির দূর্গম সাজেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে সীমান্ত সড়ক নির্মিত হচ্ছে। এর মাধ্যমে ট্যুরিজম সেক্টরে বিস্ফোরণ ঘটবে বলেও মন্তব্য করেছেন জেলা প্রশাসক।

রাঙামাটির পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে হলে সুষ্ট সঠিক পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে এবং এই ক্ষেত্রে পার্বত্য রাঙামাটি জেলা পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট্য সকল প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবর্গ একই সাথে বসে আলোচনা করলে রাঙামাটির পর্যটন শিল্প নিয়ে নতুন দিগন্তের সূচনা হতো।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর (টোয়াব) প্রেসিডেন্ট মো. রাফিউজ্জামান এর সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, পুলিশ সুপার মীর মোদাছছেছর হোসেন, রাঙামাটি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্টিজ এর প্রেসিডেন্ট মো. আব্দুল ওয়াদুদ, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, শিবলুল আজম কোরেশী, মোঃ সোহরাওয়ার্দি হোসাইন সরওয়ার, ভাইস প্রেসিডেন্ট আবুল কালাম আজাদ, ডিরেক্টর আনোয়ার হোসেন, ডিরেক্টর মনসুর আলম পারভেজ প্রমুখ। এসময় ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় উদ্যোক্তা এবং গণমাধ্যমকর্মীরা অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •