বাংলানিউজ: রাজধানীর উত্তরা এলাকা থেকে নুসরাত শাহরিন রাকা নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে রাষ্ট্রবিরোধী অপতৎপরতার অভিযোগে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) তাকে আটক করে।

তিনি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিতর্কিত উপস্থাপক কনক সারোয়ারের বোন। কনক সারোয়ারও যুক্তরাষ্ট্রে পলাতক অবস্থা রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত।

সোমবার (৪ অক্টোবর) রাতে নুসরাতকে আটক করা হয়। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে রাষ্ট্রবিরোধী অপতৎপরতার অভিযোগে তার মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ‘বিদেশে পলাতক’ অবস্থায় সাংবাদিক এবং টিভি উপস্থাপক কনক সারোয়ার দীর্ঘদিন ধরে সরকারবিরোধী তৎপরতায় লিপ্ত। তার বিরুদ্ধে ঢাকায় একাধিক মামলা রয়েছে। দেশে বেশকিছু দিন কারাবন্দি ছিলেন তিনি। জামিনে জেল থেকে বেরিয়ে তিনি বিদেশে পালিয়ে যান। তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন। বিদেশে বসে তিনি বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তি এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনায় লিপ্ত।  
মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, সাম্প্রতিক সময়ে একটি চক্র দেশ/বিদেশে অবস্থান করে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। এই চক্রের বেশ কয়েকজন সদস্য বিদেশে অবস্থান করে ভার্চ্যুয়াল জগতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর ও ষড়ন্ত্রমূলক অপপ্রচার চালাচ্ছে। চক্রের বিদেশে অবস্থানকারী সদস্যরা দেশীয় এজেন্টদের সঙ্গে যোগসাজশে এমন অপকর্ম করছে। তবে, র‌্যাবের গোয়ান্দা নজরদারি বাড়ানো হয়।

তিনি বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১ এর অভিযানে সোমবার উত্তরা এলাকা থেকে নুসরাত শাহরিন রাকাকে আটক করা হয়।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, আটক রাকা রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারকারী ও ষড়যন্ত্রকারী চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য। তিনি সামাজিক যোগযোগা মাধ্যমে রাষ্ট্র ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সম্পর্কে মিথ্যাচার, বিভ্রান্তিকর, মানহানিকর তথ্য ছাড়াও বিভিন্ন উসকানিমূলক তথ্য প্রচারের মাধ্যমে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্টের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। এই চক্রের বেশ কয়েকজন সদস্য বিদেশে অবস্থান করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাষ্ট্রবিরোধী বিভিন্ন অপপ্রচারের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

 

দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার উদ্দেশ্যে তারা অপপ্রচারণা চালিয়েছেন। আটক আসামির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।