সিবিএন ডেস্ক:
বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে তার সংসদ ভবনস্থ কার্যালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

সাক্ষাতে তারা অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার, জলবায়ু ইস্যু, রোহিঙ্গা ইস্যু, নারীর ক্ষমতায়ন, আসন্ন প্রি-কপ সম্মেলন নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, জাতীয় সংসদ সদস্য থেকে শুরু করে স্থানীয় তৃণমূল পর্যায়ে নারীর ক্ষমতায়নে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সারা দেশের মানুষকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনতে নিরলস কাজ করছে সরকার।

সুইস রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড বাংলাদেশের সঙ্গে সুদৃঢ় কূটনৈতিক সুসম্পর্কের ধারাবাহিকতা স্মরণ করে বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা ও রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া পদক্ষেপগুলো প্রশংসনীয়। এসময় মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা, নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ, তথ্য অধিকার ও বাক-স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থার প্রশংসা করেন রাষ্ট্রদূত। ‘লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ ক্যাম্পেইন ২০২১’ বাস্তবায়নের জন্য সংসদ ভবনকে ভেনু হিসেবে প্রস্তাব উপস্থাপন করলে স্পিকার তাকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

স্পিকার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ভাষণে সার্বিক মানব উন্নয়নে ৬ দফা প্রস্তাব তুলে ধরেছেন, যা সময়োপযোগী। তথ্য অধিকার ও বাক-স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠায় সরকার সফল হলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুল তথ্য ও গুজব ছড়ানোর মাধ্যমে দেশের চলমান অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা হচ্ছে। যা ঠেকাতে সকলের সম্মিলিত প্রয়াস জরুরি। এসময় ইতালির রোমে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন প্রি-কপ সম্মেলনে সংসদীয় প্রতিনিধিদিলের অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে উল্লেখ করেন স্পিকার। এসময় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •