প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে অনলাইন চিত্রাঙ্কন, রচনা ও আবৃত্তি প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান গতকাল বিকাল ৪ টায় পাবলিক হলে প্রতিযোগীতা উপ পরিষদ এর আহবায়ক সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চলনা করেন প্রতিযোগীতায় উপ পরিষদ এর সদস্য সচিব ওয়াহিদ মুরাদ সুমন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড.ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগে সাধারন সম্পাদক, কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ নজিবুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক উজ্জ্বল কর।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকেরা শুধু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি। সেদিন হত্যা করেছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূর্যকে, স্বাধীনতার চেতনাকে, বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে। সেই চক্র এখনও তৎপর। তিনি বলেন, শিশু-কিশোরদের প্রতি আহ্বান থাকবে তোমরা বঙ্গবন্ধুকে জানো, মুক্তিযুদ্ধকে জানো। বিশেষ অতিথির বক্তব্য জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, একটি কুচক্রি মহল পাকিস্তানি দোসরদের সাথে আঁতাত করে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলার অপচেষ্টা করেছিল। দুর্বৃত্তরা পারেনি। বাঙ্গালী জাতি তাদের প্রত্যাখান করেছে। এই ধরনের আয়োজনে নতুন প্রজন্ম সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে। এই আয়োজনে কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি/ সম্পাদক কে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি ।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম বলেন, আমাদের আজকের প্রতিযোগীতার মধ্য দিয়ে যাঁরা বঙ্গবন্ধুর ছকি এঁকেছেন, যারা জাতীয় পতাকা এঁকেছে, স্মৃতিসৌধ একেছে, যারা বঙ্গবন্ধুর কবিতাকে উচ্চারণ করেছে তাদের মনন থেকে, তাদের মস্তিকে তারা যে বঙ্গবন্ধুকে গ্রহন করেছে এর মধ্য দিয়ে আমরা মনে করি ঘাতকরা ব্যক্তি মুজিবকে হত্যা করলেও আদর্শের মুজিবকে, জাতির পিতা মুজিবকে, বাঙ্গালী জাতির স্বাধীনতার মহানায়ককে তারা হত্যা করতে পারেনি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক উজ্জ্বল কর বলেন সমাজের অবক্ষয়ের এই সময়ে আগামী প্রজন্মের জন্য সাংস্কৃতিক মনস্ক, ইতিহাস মনস্ক এবং অসাম্প্রদায়িক চেনতায় দেশ গঠনের জন্য এ ধরনের কর্মসূচি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরনের কর্মসূচি পৌর আওয়ামীলীগ অব্যাহত রাখবে।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগ সহ সভাপতি আসিফ উল মওলা,সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, প্রতিযোগীতার বিচারক কবি আসিফ নূর,পরেশ কান্তি দাশ। আরো উপস্থিত ছিলেন শাহেদ আলী, মিজানুর রহমান,জহিরুল কাদের ভুট্টো, নুরুল আলম পেঠান,শুভ দত্ত বড়ুয়া, প্রতিযোগীতা উপ পরিষদ সদস্য ফয়সল হুদা,আমির উদ্দিন, আবুল কালাম প্রমূখ।