মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু:
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম স্টুডেন্ট ক্লাব আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্ট’র ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়কের পূর্ব পাশে ঘুমধুম মাঠে উক্ত খেলায় যুগ-জুড়ান্ত বনাম সীমান্ত কিশোর দলের মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতায় খেলার নির্ধারিত সময়ে কোন দল জয়ের মুখ দেখেনি। ফলে ট্রাইবেকারে ৩-২ গোলে সীমান্ত কিশোর দল জয়লাভ করে। ঘুমধুম ইউনিয়ন যুবলীগ সম্পাদক ও ক্রীড়া পরিষদের সদস্য নুর হোসেন শিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত খেলার শুভ উদ্ধোধক ছিলেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ন-আহবায়ক শাহনেওয়াজ চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আল আমিন। খেলার প্রধান পৃষ্টপোষক ঘুমধুম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব খালেদ সরওয়ার হারেজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন উখিয়া প্রেসক্লাবের সদস্য সাংবাদিক শ.ম.গফুর,ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই শাহাব উদ্দিন,ঘুমধুমের সাবেক খেলোয়াড় মাষ্টার মোঃ ইউনুস,সাবেক খেলোয়াড় কামরুল হাসান শিমুল,ঘুমধুম ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি আলী আকবর,বালুখালীর কৃতি খেলোয়াড় নুরুল আবসার সাজু। খেলায় অতিথিরা বিজয়ী, বিজিত ও সেরা খেলোয়াড়দের পুরস্কার তুলে দেন। ধারা ভাষ্যকার ছিলেন নুর হোসেন। রেফারীর সুশৃংখল পরিবেশে খেলা পরিচালনায় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখায় তাদেরও পুরস্কৃত করা হয়। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ কালে বক্তারা বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে খেলাধুলার প্রয়োজন রয়েছে। মাদক থেকে বিরত থাকতে খেলার বিকল্প নেই। মাদকের ভয়াল থাবা সীমান্ত এলাকা ঘুমধুমে প্রবেশ করেছে বহু আগেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথাসাধ্য মাদক জব্দ করেছে। পাচারে জড়িত অনেকেই আইনের আওতায় এসেছে।
এখনো বহু মাদক কারবারি কারান্তরীন আছে।মাদকের আগ্রাসন থেকে ছাত্র-যুব সমাজ কে রক্ষা করতে সম্মিলিত প্রচেষ্টার বিকল্প নেই। যেখানে সকলের অংশ গ্রহণে মাদক থেকে দূরে থাকা যাবে। তাই ঘুমধুমের মাটিতে নিয়মিত খেলাধুলা চর্চা করা হউক। ঘুমধুম থেকেই জাতীয় মানের খেলোয়াড় সৃষ্টিতে আমরা দলমত নির্বিশেষে এক কাতারে একই পতাকায় সমবেত হই। মাদক নির্মূলে সহায়ক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখি। এসময় ঘুমধুম ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ সোহেল রানা,মাষ্টার ছৈয়দুর রহমান হীরা,যুবনেতা শাহ জালাল,ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম,সোহেল,মামুন
,আমিন,ঘুমধুম ক্রীড়া পরিষদ নেতৃবৃন্দ,ঘুমধুম স্টুডেন্ট ক্লাব নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার ক্রীড়াপ্রেমীগণ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •