শাহেদুল ইসলাম মনির, কুতুবদিয়া:

কাল থেকে খোলা হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শুরু হবে পাঠদান। সরকারি ঘোষণার পর থেকে স্কুল খোলার প্রস্তুতি শুরু করেছে কুতুবদিয়ার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। শ্রেণিকক্ষ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা, স্যানিটাইজ করা, স্কুল চত্বরসহ আশেপাশের ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করা হচ্ছে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাঠদান করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন শিক্ষকরাও। দীর্ঘ দিন পর স্কুল খোলা নিয়ে আশার আলো দেখছেন অভিভাবকরা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশনার পর পরই দ্বীপের বিভিন্ন স্থানে চলছে এসব কাজ।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৫৯টি,কেজি স্কুল ৪২টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৮টি, মাদ্রাসা ৯টি, জুনিয়র বিদ্যালয় ২টি, কলেজ ৪টি খোলার প্রস্তুতি শুরু করেছে। সবগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, শ্রেনীকক্ষ পরিচ্ছন্ন করা হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সীমানা প্রাচীরের ভিতর ও বাহিরে ঝোপ ঝাড়ও পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে।

বাইঙ্গাকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মফিজ আলম জানান, সরকারি ঘোষণার পর উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে জানানো হয়েছে গত ৯ সেপ্টেম্বর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষা উপযোগী করে রাখার জন্য সকল প্রস্তুতি নিতে। তবে, ইতোমধ্যে আমরা সকল ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি।

ধূরুং পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোরশেদুল ইসলাম বলেন, শ্রেণীকক্ষ ধোয়া মুছা, ঝোপ ঝাড় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করাসহ অন্যান্য প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। কাল থেকে শ্রেনিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোক্তার আহমেদ জানান, কুতুবদিয়ার ৪২ কেজি স্কুল ও ৫৯ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মেরামতের কাজ চলমান হওয়ায় এখনো অল্প কাজ সম্পন্ন হয়নি,তবে কয়েকদিনের মধ্যে হয়ে যাবে।

এবিষয়ে, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রজব আলী জানান, সরকারি ঘোষণার পর সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শ্রেণীকক্ষ ধোয়া মুছা, ঝোপ ঝাড় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন এবং অন্যান্য প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। উপজেলার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১০টি, মাদরাসা ৯টি, কলেজ ৪টি ও জুনিয়র বিদ্যালয় ২টিসহ মোট ২৫ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামীকাল পাঠদানের জন্য উপযোগী শ্রেনীকক্ষ প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ, গত ২০২০ সালে ১৭ মার্চ সারাদেশের মতো কুতুবদিয়াও এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •