বিদেশ ডেস্ক: তবে কী সেই মধ্যযুগীয় ধ্যান ধারণাতেই রয়ে গেছে তালেবান? নারীদের কখনই মন্ত্রীসভায় স্থান দেবেনা বলে সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন সংগঠনটির একজন মুখপাত্র। উল্টো জানালেন, নারীদের উচিত শুধু সন্তান জন্ম দেয়া। মন্ত্রী হওয়ার ‘বোঝা’ তাদের নেয়া উচিত নয়। বৃহস্পতিবার তালেবানের মুখপাত্র সায়েদ জেকরুল্লাহ হাশিমি টোলো নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথাই বললেন। তিনি বলেন, তালেবান মোটেও নারীদের সমাজের অর্ধেক হিসেবে বিবেচনা করে না। কোনো নারীকে মন্ত্রী করার অর্থ হচ্ছে, তার ঘারে এমন একটি বোঝা দেয়া যা সে কখনই বহন করতে পারবে না। টোলো নিউজের রিপোর্টারকে হাশিমি আরও বলেছেন, যেসব নারীরা কাবুলের রাস্তায় আন্দোলন করছে তারা আফগান নারী নন। কারণ আফগান নারী শুধু তারাই যারা সন্তান জন্ম দেয় এবং তাদেরকে ইসলামি শিক্ষা দেয়।

ডেইলি মেইলের খবরে জানানো হয়েছে, ১১ সেপ্টেম্বর নতুন সরকারের অভিষেক অনুষ্ঠান আয়োজন করছে তালেবান।

ধারণা করা হচ্ছে, নাইন ইলেভেন সন্ত্রাসী হামলাকে ট্রল করার জন্যেই এদিনকে বেছে নিয়েছে তালেবান। হাশিমি টোলো নিউজের রিপোর্টারকে যেসব কথা বলেছেন, তা প্রমাণ করে তালেবান আসলে তাদের কট্টোর অবস্থান ছেড়ে আসেনি। সময় গেলে তারা তাদের বর্বর শাসন আবারও কায়েম করবে সেই আশঙ্কাও ক্রমশ জোরদার হচ্ছে।

তালেবান বারবার দাবি করে আসছে, তারা পূর্বেকার অবস্থা থেকে অনেক পরিবর্তিত হয়েছে। কিন্তু আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা, সাংবাদিক নির্যাতন, নারীদের খেলাধুলা নিষিদ্ধসহ বেশ কিছু ঘটনা ইঙ্গিত দেয় যে সংগঠনটি এখনও সেই মধ্যযুগীয় ধ্যান ধারণাতেই রয়ে গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •