সিবিএন ডেস্ক:
কাবুল বিমানবন্দরে শিগগিরই নিয়মিত ফ্লাইট চালুর ঘোষণা দিয়েছে কাতার ও আফগানিস্তানের তালেবান সরকার। মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের পর ৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো সেখানে যাত্রীবাহী ফ্লাইট উড্ডয়ন করে। কাতার এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজে কাবুল ত্যাগ করে শতাধিক বিদেশি যাত্রী। এদিন এয়ারপোর্টটিতে শিগগিরই নিয়মিত ফ্লাইট চালুর ঘোষণা আসে। আফগানিস্তানের শাসক গোষ্ঠী তালেবান ও কাতারের কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা আসে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস।

বৃহস্পতিবার কাবুল বিমানবন্দরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে অংশ নেন কাতারি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশেষ দূত ড. মুতলাক বিন মাজেদ আল কাহতানি। তিনি বলেন, ‘আমি স্পষ্টভাবে বলতে পারি যে, আফগানিস্তানের ইতিহাসে এটি একটি ঐতিহাসিক দিন। কারণ কাবুল বিমানবন্দর এখন চালু রয়েছে।’

তিনি বলেন, কাবুলে প্রথম বিমানটি এসেছে দোহা থেকে এবং যাত্রীরা কাতারে যাত্রাবিরতি দিয়ে তাদের চূড়ান্ত গন্তব্যে যাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সংশ্লিষ্ট একজন মার্কিন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আমেরিকান এবং অন্যান্য দেশের নাগরিকদের আফগানিস্তান ত্যাগের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বিমানবন্দরটিতে ফ্লাইট উড্ডয়নের ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য কাতারকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, এয়ারপোর্ট ফের চালুর মাধ্যমে সব মুসলিম ও অন্যান্য দেশের আফগান জনগণের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ানোর সুযোগ তৈরি হয়েছে। মানবিক সহায়তা প্রদানের আহ্বান জানানোর ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •